Daily Sunshine

বাঘায় ইতালি প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার, বাঘা : রাজশাহীর বাঘায় ইতালি প্রবাসীর স্ত্রী ইসমত আরা বেগম নামের এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বাড়ির পাশে আম গাছে গলায় ফাঁস দিয়ে সে আত্মহত্যা করে। পরে বাঘা থানার পুলিশ ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে থানায় এনেছেন।
জানা যায়, বাঘা উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়নের মহদিপুর গ্রামের ইতালি প্রবাসী মিটুল হোসেনের স্ত্রী ইসমত আরা বেগম (২৫) এর ৬ বছরের সন্তান মোনায়েম হোসেন ধুলাবালি নিয়ে খেলা করছিল। এ সময় তার দাদা ধুলাবালি নিয়ে খেলতে নিষেধ করে এবং শাসন করে। পরে শিশুর মা পূনরায় ছেলেকে মারধর করে। এতে গৃহবধূর শ^শুর আয়ুব আলী বিষয়টি নিয়ে গালমন্দ করে। গালমন্দের বিষয়টি সহ্য করতে না পেরে একই গ্রামে গৃহবধূর বাবার বাড়িতে গিয়ে বাড়ির পাশে এক আম বাগানে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। পরে বাঘা থানার পুলিশ ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে থানায় আনে। তবে এ বিষয়ে বাঘা থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে। গৃহবধূ স্বামী মিটুল হোসেন ৫ বছর থেকে ইতালিতে রয়েছেন বলে জানা গেছে।
বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মহসীন আলী বলেন, ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে। বুধবার মর্গে লাশ প্রেরণ করা হবে। তবে গৃহবধূ পারিবারিক কলহের জের ধরে আত্মহত্যা করেছে।

জানুয়ারি ০৯
০৩:২১ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আসাদুজ্জামান নূর : ছোটবেলা থেকেই আঁকাআঁকির প্রতি নেশা ছিল জুবাইদা খাতুন তন্বীর। ক্লাসের ফাঁকে, মন খারাপ থাকলে বা বোরিং লাগলে ছবি আঁকতেন তিনি। কারও ঘরের ওয়ালমেট, পরনের বাহারি পোশাক ইত্যাদি দেখেই এঁকে ফেলতেন হুবহু। এই আঁকাআঁকির প্রতিভাকে কাজে লাগিয়েই হয়েছেন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা। তুলির খোঁচায় পরিধেয় পোশাকে বাহারি নকশা, ছবি, ফুল

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

সানশাইন ডেস্ক : সর্বশেষ ১৯৯১ সালে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানো হয়। এরপর অবসরের বয়স বাড়ানো হলেও প্রবেশের বয়স আর বাড়েনি। বেকারত্ব বেড়ে যাওয়া, সেশনজট, নিয়োগের ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্রতা, অন্যান্য দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা। তবে এ বিষয়ে উদ্যোগ নেয়নি

বিস্তারিত