Daily Sunshine

সাংসদে মনোনয়ন বঞ্চিতরা উপজেলা নির্বাচনের প্রার্থী

স্টাফ রিপোর্টার, বাঘা: একাদশ জাতীয় সাংসদ নির্বাচন শেষ হতে না হতে রাজশাহীর বাঘায় শুরু হতে যাচ্ছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতিকে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ দিক থেকে ক্ষমতাসীন দল আ’লীগের একাধিক প্রার্থী ইতোমধ্যে দলীয় মনোনয়ন পেতে দৌড়-ঝাপ শুরু করেছেন। এর মধ্যে সাংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন বঞ্চিত দু’জন নেতা রয়েছেন।
সংশ্লিষ্ঠ সুত্রে জানা গেছে, আগামি ফেব্রুয়ারি মাসে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল এবং মার্চে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে প্রথমবারের মতো দলীয় প্রতিকে ভোট গ্রহন চলবে। সে লক্ষ্যে দেশের বড় দুটি রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশিরা ইতোমধ্যে গণসংযোগ শুরু করেছেন।
তবে এখন পর্যন্ত যাদের নাম শোনা যাচ্ছে, তাদের মধ্যে আ’লীগ থেকে ২০১৮ সালের সাংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন বঞ্চিত প্রার্থী ও জেলা আ’লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দীন লাভলু এবং বাঘা পৌরসভার সাবেক মেয়র আক্কাছ আলী অন্যতম ।
এ ছাড়াও এই দল থেকে প্রার্থী হতে চেয়েছেন গত উপজেলা নির্বাচনে পরাজিত প্রার্থী ও দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি আজিজুল আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল, বাঘা উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও বাঘা পৌরসভার প্যানেল মেয়র শাহিনুর রহমান পিন্টু ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মামুন হোসেন।
এদিকে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত সাংসদ নির্বাচনে পরাজয়ের কথা ভুলে উপজেলা নির্বাচনে অংশ গ্রহণের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন জাতীয়তাবাদী দলের সাবেক উপজেলা সভাপতি ও বর্তমান আহবায়ক অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন, বাঘা থানা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক যুবদলের সভাপতি আব্দুল্লা আল মামুন।
বাঘা উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল বলেন, মানুষ সবায় উপরে উঠতে চাই। এ দিক থেকে যারা সাংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন না পেয়ে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে চায় তাদের বিষয়ে ভাবতে হবে। তিনি আরো বলেন, এখানে যে দু’জন নেতা সাংসদ প্রার্থী হতে পারেনি তারা পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের বিরুদ্ধে প্রথম দিকে অবস্থান নিয়েছিল এটা সবার জানা। এদিকে দলের কেন্দ্রীয় কমান্ড যে সিদ্ধান্তই নিক না কেন-সেটা ভেবে চিন্তে নিতে হবে।
অসন্ন উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রসঙ্গে বাঘার সাবেক মেয়র আক্কাছ আলী বলেন, বাঘা পৌর সভায় দীর্ঘদিন মেয়র থেকে এলাকার অনেক উন্নয়ন করেছি। এবার উপজেলা চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করতে চাই। আশা করি দল আমাকে মনোনয়ন দিবেন।
অন্যদিকে এ্যাড. লায়েব উদ্দীন লাভলুর কর্মী সমর্থক ও ঘনিষ্ঠজনরা মনে করছেন, দলীয় প্রতীকে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলে এখানে যে ক’জন প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে, তাদের মধ্যে দলের সিনিয়র নেতা হিসাবে জনপ্রিয়তায় থাকবেন জেলা আ’লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট লায়েব উদ্দীন লাভলু। সার্বিক ভাবে বিবেচনা করতে গেলে দল তাকেই মনোনয়ন দেবে।
এখানে উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন বাঘা উপজেলা জামায়াত সাবেক আমীর মাওলানা জিন্নাত আলী।
তিনি সাংবাদিকদের জানান, আগামি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবো কী না তা নিয়ে এখনো সিদ্ধান্ত নেইনি। তবে তফসিল ঘোষণার পর দলীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক কাজ করবো।

জানুয়ারি ০৮
০৩:৩২ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী মহানগরীর শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বরে দাঁড়িয়ে আছে মাস্তুল আকৃতির মজবুত দুইটি পোল। প্রতিটি পোলের উপর রিং বসিয়ে তার চতুরদিকে বসানো হয়েছে উচ্চমানের এলইডি লাইট। আর সেই লাইটের আলোয় আলোকিত বিস্তৃত এলাকা। শুধু শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বর নয়, এভাবে মহানগরীর আরো গুরুত্বপূর্ণ ১৪টি চত্বর আলোকিত হয় প্রতি

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সানশাইন ডেস্ক : করোনা মহামারিতে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার সঙ্গে স্থগিত ছিল সরকারি-বেসরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ কয়েক মাসে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পায়নি দেশের শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠী। অংশ নিতে পারেনি কোনো নিয়োগ পরীক্ষাতেও। অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি চাকরির আবেদনে সুযোগ শেষ হয়ে যায় তাদের। তবে এ দুর্যোগকালীন

বিস্তারিত