Daily Sunshine

খাদ্যের ভান্ডার থেকে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র, একই দপ্তরে শাহরিয়ার-পলক

স্টাফ রিপোর্টার : টানা তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন সরকারের মন্ত্রিসভার সদস্যদের তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। রোববার বিকেলে নতুন মন্ত্রিসভার ২৪ মন্ত্রী, ১৯ প্রতিমন্ত্রী ও ৩ উপমন্ত্রীর নাম ও তপ্তরের তালিকা প্রকাশ করা হয়। সোমবার তারা শপথ নিতে যাচ্ছেন।
বৃহত্তর রাজশাহী থেকে মন্ত্রিসভায় এবারো তিনজন স্থান পেয়েছেন। এদের মধ্যে একজন নতুন ও দুইজন পুরাতন। একজনকে পুর্নাঙ্গ ও দুইজনকে আগের মতই প্রতিমন্ত্রী করা হয়েছে। এরা হলেন, নওগাঁ-১ আসনের টানা তিনবারের এমপি সাধন চন্দ্র মজুমদার, রাজশাহী-৬ আসনের তিনবারের এমপি শাহরিয়ার আলম ও নাটোর-৩ আসনের এমপি জুনায়েদ আহমেদ পলক। তবে রাজশাহী অঞ্চল থেকে এবার বাদ পড়েছেন নওগাঁ-৪ আসনের এমপি পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী ইমাজ উদ্দিন প্রামানিক।
দেশের খাদ্যের ভান্ডার হিসেবে খ্যাত নওগাঁ জেলা থেকে এবার সাধন কুমার মজুমদারকে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের পুর্নাঙ্গ দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। সাধন চন্দ্র মজুমদারের বাড়ি জেলার নিয়ামতপুর উপজেলার শিবপুর গ্রামে। তার জন্ম ১৯৫০ সালের ১৭ জুলাই। তিনি আওয়ামী লীগ প্রার্থী হিসেবে ২০০৮ সালে নওগাঁ (নিয়ামতপুর-পোরশা-সাপাহার) আসন থেকে ১ লাখ ৭৭ হাজার ২৫১ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। এরপরে ২০১৪ সালে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হন। সর্বশেষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নওগাঁ-১ আসনে বিশাল ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন। নৌকা প্রতীক নিয়ে তিনি পেয়েছেন মোট ১ লাখ ৮৭ হাজার ৫৯২ ভোট।
আর শাহরিয়ার আলম ও জুনায়েদ আহমেদ পলকের দপ্তর অপরিবর্তিত রয়েছে। শাহরিয়ার আলম হয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী এবং জুনায়েদ আহমেদ পলক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী। টানা দ্বিতীয়বারের মত প্রতিমন্ত্রী হলেন শাহরিয়ার ও পলক।

জানুয়ারি ০৭
০৩:২৪ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

ডিগ্রী থাকলেও মিলছেনা যোগ্য চাকরি

ডিগ্রী থাকলেও মিলছেনা যোগ্য চাকরি

শাহ্জাদা মিলন: বাংলাদেশের অন্যতম বিভাগীয় শহর রাজশাহী। সিল্কসিটি, আমের রাজধানী হিসেবে পরিচিত সারা দেশে রাজশাহী। তবে এসব পরিচয় ছাপিয়ে রাজশাহী ‘শিক্ষা নগরী’ হিসেবে সবচেয়ে বেশি পরিচিত। অসংখ্য নামিদামি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে এখানে। এর সুফলে রাজশাহীতে বছর বছর বাড়তে ডিগ্রিধারী মানুষের সংখ্যা। তবে সেই অনুপাতে বাড়ছে না কর্মসংস্থান। রাজশাহীতে রয়েছে রাজশাহী

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সানশাইন ডেস্ক : করোনা মহামারিতে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার সঙ্গে স্থগিত ছিল সরকারি-বেসরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ কয়েক মাসে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পায়নি দেশের শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠী। অংশ নিতে পারেনি কোনো নিয়োগ পরীক্ষাতেও। অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি চাকরির আবেদনে সুযোগ শেষ হয়ে যায় তাদের। তবে এ দুর্যোগকালীন

বিস্তারিত