Daily Sunshine

অবসাদে ভুগছেন নেহা

সানশাইন ডেস্ক: ভারতীয় গায়িকা নেহা কাক্কর। গত বছরও বেশ কিছু জনপ্রিয় গান শ্রোতাদের উপহার দিয়েছেন। কিন্তু ব্যক্তিগত জীবনটা ভালো যাচ্ছে না তার। শোনা যাচ্ছে, বয়ফ্রেন্ড হিমাংশ কোহলির সঙ্গে ব্রেকআপ হয়েছে নেহার। এবার এ গায়িকা জানালেন, অবসাদে ভুগছেন তিনি। ইনস্টাগ্রামে স্টোরিতে তিনি লিখেছেন, ‘হ্যাঁ, আমি অবসাদে ভুগছি। এ জন্য পৃথিবীর সকল নেতিবাচক ব্যক্তিদের ধন্যবাদ। আপনারা আমাকে জীবনের সবচেয়ে বাজে দিনগুলো উপহার দিতে সক্ষম হয়েছেন। অভিনন্দন, আপনারা সফল।
তিনি আরো লিখেছেন, ‘আমি একটি বিষয় পরিষ্কার করছি, এটি এক বা দুইজন ব্যক্তির জন্য নয়, বরং পুরো পৃথিবীর মানুষই আমাকে আমার মতো করে জীবনযাপন করতে দিচ্ছে না। যারা আমাকে ও আমার গান পছন্দ করেন তাদের ধন্যবাদ কিন্তু যারা আমি কেমন আছি অথবা কি সময় অতিবাহিত করছি তা না জেনে আমার সম্পর্কে আজেবাজে কথা বলছে তাদের জন্য আমার অনেক খারাপ সময় অতিবাহিত করতে হচ্ছে। আমি অনুরোধ করছি, দয়া করে আমাকে শান্তিতে থাকতে দিন। কোনো বিষয়ে সমালোচনা করবেন না দয়া করে আমাকে বাঁচতে দিন।’
কয়েকদিন আগে ‘ইন্ডিয়ান আইডল-টেন’ রিয়েলিটি শোয়ে একটি গান শুনে আবেগাপ্লুত হয়ে কেঁদেছিলন নেহা। বর্তমানে ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে কনসার্ট করছেন তিনি। সম্প্রতি আহমেদাবাদের একটি কনসার্টে ‘মাহি বে’ গান গাইতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন তিনি। এমনকি গান শুরুর আগে তিনি শ্রোতাদের উদ্দেশ্যে জানান, এটি তিনি তার মতো যাদের হৃদয় ভেঙেছে তাদেরকে উৎসর্গ করছেন। কাজের দিক থেকে হানি সিংয়ের সঙ্গে ‘মাখনা’ গানে কণ্ঠ দিয়েছেন নেহা। মাত্র একদিনের মাথায় ইউটিউবে এটি ১৫ মিলিয়নবার দেখা হয়। সিম্বা সিনেমায় তার গাওয়া ‘আঁখ মারে’ গানটি এখন টপচার্টের শীর্ষে রয়েছে। এছাড়া এ গায়িকার ছাম্মা ছাম্মা গানটিও বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে।

জানুয়ারি ০৬
০৩:২৭ ২০১৯

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

নতুন রূপ পাচ্ছে রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী সোনাদীঘি

নতুন রূপ পাচ্ছে রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী সোনাদীঘি

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের উদ্যোগে মহানগরীর ঐতিহ্যবাহী সোনাদীঘি নতুন রূপ পেতে যাচ্ছে। একই সাথে সোনাদীঘি ফিরে পাচ্ছে তার হারানোর ঐতিহ্য। সোনাদীঘিকে এখন অন্তত তিন দিক থেকে দেখা যাবে। দিঘিকে কেন্দ্র করে গড়ে তোলা হবে পায়ে হাঁটার পথসহ মসজিদ, এমফি থিয়েটার (উন্মুক্ত মঞ্চ) ও তথ্যপ্রযুক্তি

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সানশাইন ডেস্ক : করোনা মহামারিতে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার সঙ্গে স্থগিত ছিল সরকারি-বেসরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ কয়েক মাসে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পায়নি দেশের শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠী। অংশ নিতে পারেনি কোনো নিয়োগ পরীক্ষাতেও। অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি চাকরির আবেদনে সুযোগ শেষ হয়ে যায় তাদের। তবে এ দুর্যোগকালীন

বিস্তারিত