Daily Sunshine

রামেকে যুক্ত হচ্ছে ৫ বিভাগ

স্টাফ রিপোর্টার : শিক্ষানগরী রাজশাহীর অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক)। প্রতিবছরই শত শত মেধাবী ডাক্তার তৈরীতে অবদান রেখে চলেছে এই বিদ্যামন্দির। উত্তরবঙ্গসহ দেশের অন্যতম বৃহৎ হাসপাতাল রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল। উত্তরবঙ্গসহ দেশের ও দেশের বাইরে থেকেও প্রতিদিন হাজারো মানুষ চিকিৎসা নিতে ভিড় জমান রামেক হাসপাতালে।
১৯৫৪ সালে রাজশাহীতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ যাত্রা শুরু করে। ১৯৬৫ সালে ৫৩০ শয্যার হাসপাতাল চালু করা হয়। ২০১২ সালে এতে আরো ৩৫২টি বেড এবং ৬টি অপারেশন থিয়েটার যোগ করা হয়। ১৯৬৯ সালে রোগ নির্ণয় ও চিকিৎসা সেবা প্রদানের লক্ষ্যে নির্মিত হয় পরমাণু চিকিৎসা কেন্দ্র।
১৯৭৪ সালে প্রশাসনিক ভবনের সামনে শহীদ মিনার নির্মিত হয়। ১৯৮৪ সালে স্থানীয় ব্যবস্থাপনায় করোনারী কেয়ার ইউনিট খোলা হয়। ১৯৯০ সালে এটা কার্ডিওলজি বিভাগ হিসেবে পূর্ণতা লাভ করে। ১৯৮৯ সালে ডেন্টাল সার্জারী কোর্স চালু হয়। এখানে ২০০৭ সাল থেকে নিয়মিতভাবে করোনারি অ্যাঞ্জিওগ্রাম ও পেসমেকার প্রতিস্থাপন করা হচ্ছে। ২০১৪ সালে এখানে বার্ন ইউনিট চালু করা হয়। বর্তমানে এই হাসপাতালকে ১২০০ বেডে রূপান্তর করা হয়েছে। এছাড়াও ডেন্টাল ইউনিটকে ডেন্টাল কলেজ হাসপাতালে রূপান্তরের কাজ চলছে।
শিক্ষা ব্যবস্থায় আমুল পরিবর্তন নিয়ে এসেছে বর্তমান সরকার। তারই ধারাবাহিকতায় উত্তরবঙ্গের অন্যতম শিক্ষামন্দির এই কলেজটিতে পাঁচটি নতুন বিভাগ যুক্ত হতে যাচ্ছে। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের মঞ্জুরী পাওয়ার পর বিভাগগুলো চালুর প্রক্রিয়া শুরু করেছে কর্তৃপক্ষ।
চালু হতে যাওয়া পাঁচটি বিভাগ হলো ক্যাজুয়ালটি, অ্যান্ডোক্রাইন সার্জারি, হেপাটোবিলিয়ারি সার্জারি, কলোরেক্টাল সার্জারি ও সার্জিক্যাল অনকোলজি। এসব বিভাগে একজন করে সহযোগী অধ্যাপক ও সহকারী অধ্যাপক নিয়োগ করা হবে। তবে নিয়োগকৃতদের অবশ্যই বিসিএস (স্বাস্থ্য) ক্যাডারভুক্ত হতে হবে।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, মঞ্জুরিপত্র অনুযায়ী দেশের ১৪টি বিদ্যমান ও নতুন মেডিকেল কলেজে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ১৩১টি পদে নিয়োগ দেয়া হবে। এর মধ্যে রাজশাহী মেডিকেল কলেজের নতুন পাঁচটি বিভাগে ১০টি পদ রয়েছে।
প্রতিটি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপকের বেতন হবে গ্রেড-৪ স্কেলে ৫০ হাজার থেকে ৭১ হাজার ২০০ টাকা। আর সহকারী অধ্যাপকের বেতন হবে গ্রেড-৬ স্কেলে ৩৫ হাজার ৫০০ থেকে ৬৭ হাজার ১০ টাকা।
রাজশাহী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক নওসাদ আলী জানান, পাঁচটি বিভাগ সংযুক্ত হলে রামেকে শিক্ষা বিস্তারে নতুন দিক উন্মোচিত হবে। আমরা পাঁচটি বিভাগের অনুমোদন পেয়েছি। দ্রুত এগুলোর বাস্তবায়ন করা হবে। এজন্য অচিরেই জনবলও পাওয়া যাবে।

জানুয়ারি ০৫
০৩:৩৪ ২০১৯

আরও খবর