সর্বশেষ সংবাদ :

এবার টান দিয়ে যুবকের বিশেষ অঙ্গ ছিঁড়ে ফেলেছে … 

সানশাইন ডেস্ক;

সুনামগঞ্জের ছাতকে টান দিয়ে এক যুবকের বিশেষ অঙ্গ ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে । এ ঘটনায় পুলিশ এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছেন ।

মঙ্গলবার দুপুরে ছাতক থানার ওসি মাহবুর রহমান ও এসআই মহিন উদ্দিনের নেতৃত্বে পুলিশ জাউয়াবাজার এলাকায় অভিযান চালিয়ে তার নিজ বাড়ি থেকে আব্দুল জলিলকে আটক করেছে ।

আটক আব্দুল জলিল উপজেলার জাউয়াবাজার ইউপির হরিপুর গ্রামের মৃত মুসলিম উদ্দিনের পুত্র ।

জানা গেছে, গত ৬ জানুয়ারি গোবিন্দগঞ্জ সৈদেরগাঁও ইউপির কটালপুর গ্রামে মৃত তেরাব আলীর ছেলে বাদশা মিয়া তার একটি গরু নিয়ে জাউয়াবাজারে বিক্রি করতে যায় । তার গরুটি জাকারিয়ার গায়ে আঘাত দেওয়ার ঘটনায় বাদশা মিয়া ও জাকারিয়ার মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে হাতাহাতি কিল, ঘুসি ও পরে আব্দুল জলিল ও জাকারিয়ার মিলে বাদশা মিয়ার অণ্ডকোষ টান দিয়ে ছিঁড়ে ফেলেন।

এ ঘটনার পর আশপাশে লোকজন আহত বাদশা মিয়াকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে স্থানীয় কৈতক হাসপাতালে ভর্তি করলে অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয় । তিনি এখন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন ।

এ ঘটনায় আহত বাদশা মিয়ার পিতা নুরুল আমিন বাদী হয়ে উপজেলার জাউয়াবাজার ইউপির হরিপুর গ্রামের মৃত মুসলিম উদ্দিনের ছেলে আব্দুল জলিল ও তার পুত্র জাকারিয়াকে আসামি করে থানায় একটি মামলা দায়ের করে । এ মামলার পুলিশ মঙ্গলবার আব্দুল জলিলকে তার নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে ।

এসআই মহিন উদ্দিন আসামি আটকের এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে ওসি মাহবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, গ্রেফতারের পর মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে আসামিকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।


প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৫, ২০২২ | সময়: ৮:২৬ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine