বাঘায় জনবল সংকটের মধ্যে চলছে প্রশাসনিক কার্যক্রম!

স্টাফ রিপোর্টার ,বাঘা : রাজশাহীর বাঘা উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন অফিসে জনবল সংকটের কারণে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার মানুষ।এখানে একটি অফিসের প্রধান কর্মকর্তা নেই। অপর তিনটি দপ্তরে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করছেন তিনজন কর্মকর্তা ।এ ছাড়াও বিভিন্ন দপ্তরে অফিস সহকারী পদ শুন্য রয়েছে। এ কারনে যে কাজ ১৫ দিনে হওয়ার কথা , সেই কাজ শেষ হতে সময় লাগছে প্রায় ১ থেকে দেড় মাস।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, এ উপজেলায় গত প্রায় দুই মাস যাবত প্রানী সম্পদ কর্মকর্তা পদটি শুন্য রয়েছে। এ ছাড়াও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা , হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা এবং পরিসংখ্যান কর্মকর্তা এক সাথে দুই উপজেলায় দায়িত্ব পালন করার কারনে সহকারী এবং অন্যান্য কর্মচারীরা রাত-দিন সমানে কাজ করেও কাজ শেষ করতে পারছেনা। এর ফলে ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন উপজেলার সাধারণ জনগণ।

বাঘা উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শামিম হোসেন জানান, তাঁর কর্মস্থল চারঘাট উপজেলায় । অথচ বাঘা উপজেলায় তাঁকে এক বছর ধরে অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করা লাগছে।তিনি অভিযোগ করে বলেন, এখানে তার পদটি ছাড়াও উপ-সহকারী প্রকৌশলী এবং অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদ শুন্য রয়েছে। এতে করে তাঁকে অত্র অফিস সামাল দিতে চরম হিমশিম খেতে হচ্ছে।

অপর দিকে উপজেলা হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা মুক্তার আলী জানান, তাঁর কর্মস্থল নাটোরের লালপুর উপজেলায় ।তিনি গত প্রায় এক বছর ধরে বাঘা উপজেলা হিসাব রক্ষন অফিসে অতিরিক্ত হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।তাঁর অফিসে একজন অডিটর এবং একজন জুনিয়র অডিটর পদ শুন্য থাকায় কাজের চাপ তিনি সহ অফিস সহকারিকে সামাল দিতে হয় । ফলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সকলের কাজ করে দেওয়া সম্ভব হয়না।অনুরুপ কথা বলেন, রাজশাহী সি.টি কর্পোরেশন ও বাঘা উপজেলায় দায়িত্বরত পরিসংখ্যান কর্মকর্তা আসিফ ইকবাল।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসের (সি.এ) আব্দুল আজিজ এ প্রতিবেদককে বলেন, বাঘা উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরে পিয়ন, নৈশ্য প্রহরী এবং অফিস সহকারি পদে জনবল সংকট রয়েছে। তিনি এ বিষয় নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে কথা বলার জন্য অনুরোধ জানান।

সার্বিক বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার পাপিয়া সুলতানা বলেন, বাঘা উপজেলার বিভিন্ন অফিসে জনবল সংকটের বিষয়টি আমি অবগত ।এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক মহাদ্বয়কে জানানো হয়েছে। তিনি বলেন, আমার জানা মতে, সরকার বিভিন্ন পদে জনবল নিয়োগ দেবার চেষ্টা করছেন । আশা করছি, অতি দ্রুতই জনবল নিয়োগ হবে। এরপর জনগনকে আর কোন ভুগান্তি পোহাতে হবে না।

তবে অত্র উপজেলার সুশীল সমাজের দাবি, ২ টি পৌরসভা এবং ৭ টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত বাঘা উপজেলা। রাজশাহীর যে কোন উপজেলার চেয়ে কৃষি এবং ব্যবসা বানিজ্যে প্রসার (এগিয়ে) রয়েছে এই উপজেলাটি ।এখানে হযরত শাহদৌলার মাজার , মুগোল আমলে প্রতিষ্টিত শাহী মসজিদ এবং সু-বিশাল দিঘী সহ মুসলিম স্থাপত্যের নিদর্শন স্বরুপ জাদুঘার এবং ৫শ’ বছরের পুরাতন শাহী মসজিদ রয়েছে। এর ফলে এ খানে প্রতিদিন হাজার-হাজার মানুষের আগমন ঘটে।

এ উপজেলা থেকে বর্তমান এবং বিগত সময়ে যারা সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন তারা মন্ত্রী এবং প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন।এখন যিনি রয়েছেন তিনি পর-পর তিন তিনবার নির্বাচিত সাংসদ এবং বর্তমান সরকারের মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। তাঁর মাধ্যমে অত্র উপজেলার জনবল সংকট বিষয়টি অতি দ্রুত সমাধানের দাবি রেখেছেন উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারণ ।

 


প্রকাশিত: মে ১১, ২০২২ | সময়: ৪:০৫ অপরাহ্ণ | আসাদুল্লাহ গালিব