Daily Sunshine

ইংল্যান্ডের কাছে সিরিজ হারলো পাকিস্তান  

Share

স্পোর্টস ডেস্ক

ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় সারির দলের কাছে তিন শতাধিক রান করেও জিততে পারলো না পাকিস্তান।

মান বাঁচানোর লড়াইয়ের শেষ ম্যাচে খেললেন ক্যারিয়ারসেরা ইনিংস বাবর আজম। তবু লাভ হলো না ৩ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হলো তার দল পাকিস্তান।

বার্মিংহামে মঙ্গলবার ১৩৯ বলে ১৪ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কার মারে ১৫৮ রান করেছেন বাবর আজম। যা তার আগের ১২৫ (নটআউট) রানের সর্বোচ্চ ইনিংসকে ছাড়িয়ে গেল।

তার ক্যারিয়ারসেরা ইনিংসে ভর করে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৩৩২ রানের বড় টার্গেট ছুড়ে পাকিস্তান।

আর সেই টার্গেট দুই ওভার বাকি থাকতেই ৭ উইকেটে জমা করে ফেলে ইংল্যান্ড। অর্থাৎ শেষ ম্যাচটি ৩ উইকেটে জিতে পাকিস্তানকে ৩-০ তে হোয়াইটওয়াশ করল ইংল্যান্ডের তৃতীয় সারির দল।

এ জয়ে সবচেয়ে বেশি অবদান মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান জেমস ভিন্সের। হারিস রউফের বলে আউট হওয়ার আগে ৯৫ বলে ১০২ রান করেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান আসে লুইস গ্রেগরির ব্যাট থেকে। উইকেটে থিতু হওয়ার পর ৬ বাউন্ডারি ও ৩ ছক্কার মারে ৬৯ বলে ৭৭ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

ইংলিশ দলের ওপেনার দাভিদ মালান ও উইকেটরক্ষক জন সিম্পসনই কেবল রান পাননি আজ। বাকি সবাই কিছু না কিছু অবদান রেখেছেন। ফলে পাক বোলাদের সামলে নিয়ে সহজ জয় পেলে ইংল্যান্ড।

পাক বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল হারিস রউফ। ৯ ওভারে ৬৫ রান দিলেও উইকেট পেয়েছেন ৪টি। শাদাব খান দুটি ও হাসান আলি একটি উইকেট পেয়েছেন।

এর আগে টসে হেরে ব্যাটিং পায় পাকিস্তান। প্রথম দুই ওয়ানডের মতো এবারও শুরুর দিকে আউট হয়ে যান ফাখর জামান। দলীয় ২১ রানের মাথায় আউট হন ফখর। পাক বংশোদ্ভূত ইংলিশ পেসার শাকিব মাহমুদের বলে আউট হয়ে ৬ রান করেই সাজঘরের পথ ধরেন ফখর।

তবে গত দুই ম্যাচের মতো এবার ফ্লপ হননি ওপেনার ইমাম উল হক আর বাবর আজম। বাবরের সঙ্গে জুটি গড়েন তিনি। ৭৩ বলে ৭ বাউন্ডারিতে ৫৬ রান করে পারকিংসনের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন ইমাম।

এরপর মোহাম্মদ রিজওয়ানের সঙ্গে দুর্দান্ত জুটি গড়েন বাবর। এ জুটি ২০ ওভারে ১৭৯ রান যোগ করে দলীয় সংগ্রহ তিন শর কাছে নিয়ে যান।

তিন শ থেকে ৮ রান দূরে থাকতে আউট হন রিজওয়ান। তার আগে ৫৮ বলে ৪ চারের সাহায্যে ৭৪ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলেন।

তিন শ পেরুনোর পর দ্রুত কয়েকটি উইকেট পড়ে যায় পাকিস্তানের। ২৬ রানে শেষ ৬ উইকেটের পতন ঘটে পাকিস্তানের। একপ্রান্ত ধরে রেখে খেলছিলেন বাবর।

৫০তম ওভারের দ্বিতীয় বলে আউট হন তিনি। আর আগেই ক্যারিয়ারসেরা ইনিংস উপহার দেন পাক অধিনায়ক। ক্যারিয়ারের ১৪তম সেঞ্চুরি করেন বাবর। ব্রাইডন কারসের শেষ ওভারে ১৩৯ বলে ১৪ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কার মারে ১৫৮ রান করেন তিনি। নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে পাকিস্তানের সংগ্রহ গিয়ে দাঁড়ায় ৯ উইকেটে ৩৩১ রান।

ইংল্যান্ডের বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল কারসেই। ফাইফার পেয়েছেন ডানহাতি এই পেসার। ১০ ওভারে ৬১ রান খরচ করলেও নিয়েছেন ৫টি উইকেট। ৩ উইকেট সাকিব মাহমুদের।

সানশাইন/ শামি

জুলাই ১৪
১৭:৪৭ ২০২১

আরও খবর