Daily Sunshine

বাচ্চাদের অনলাইন পরীক্ষায় অভিভাবকদের করণীয়

Share

সানশাইন ডেস্ক : গেল বছর দেশে কোভিড সংক্রমণ শুরু হতেই শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য ঝুঁকির বিষয়টি বিবেচনা করে বন্ধ রয়েছে সব ধরনের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এতে করে বদলে গেছে স্কুল-পড়াশোনার-পরীক্ষা ধরণ সবকিছু। কোমলমতি শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা রেখে অনলাইনে চলছে ক্লাস ও পরীক্ষা।

একটা সময় ছিল বাচ্চাদের পরীক্ষা নিয়ে দুশ্চিন্তায় অস্থির থাকতেন মা-বাবারা। ছেলেমেয়েদের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে চিন্তার অন্ত থাকতো না তাদের। কিন্তু চলমান করোনা পরিস্থিতিতে পরীক্ষার ধরণ বদলে গিয়েছে। অনলাইনে পরীক্ষায় ধীরে ধীরে অভ্যস্ত হচ্ছে বাচ্চারা। কিন্তু কিছু সমস্যা থেকেই যায়। অনলাইনে পরীক্ষা দিতে আপনার সন্তানের কী কী ধরনের সমস্যা হচ্ছে এবং অভিভাবক হিসাবে আপনার করণীয় কী, চলুন জেনে নেওয়া যাক-

অনলাইন পরীক্ষায় অভ্যস্ত হতে সাহয্য করুন: অভিভাবকদের কাছে অনলাইন পরীক্ষা বিষয়টি নতুন। তাই সন্তানকে কিছু বলার আগে পুরোপুরি ওয়াকিবহাল হয়ে নিন। আপনার বাচ্চা যদি অনলাইন পরীক্ষা নিয়ে কোনো সমস্যার কথা বলে, তাহলে তাকে সাহয্য করুন। একা একা পরীক্ষা দেওয়াটা বাচ্চাদের কাছে নতুন। অনেক সময় অস্বস্তি বোধ করতে পারে। মনস্তাত্বিক সমস্যায় সর্বদা বাচ্চার পাশে থাকবেন। সে যেনো কোনো ভাবেই ঘাবড়ে না যায়। বরং সাবলিল থেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে বলুন।

পরীক্ষার মাঝে বিরতী: স্কুলের পরীক্ষার মতো নয় অনলাইন পরীক্ষা। পরিবেশটা সম্পূর্ণ আলাদা। বাচ্চারা এই ধরণের পরীক্ষায় অনেক সময় টানা লিখতে চায় না। ফলে সন্তান যদি একবারের বেশি বিরতি নিতে চায় অনলাইন পরীক্ষার মাঝে, তা নিতে দিন। বাধা দেবেন না। এতে হিতে বিপরীত হতে পারে।

দেখে লিখছে কিনা খেয়াল রাখুন: পরীক্ষা সে স্কুলে হোক কিংবা বাসায় সেটা অবশ্যই না দেখে লিখতে হবে। বাড়িতে থেকে পরীক্ষা দিচ্ছে তার মানে এই নয় যে, বই দেখে দেখে লিখবে। এই বিষয়টির প্রতি লক্ষ্য রাখবেন।

উত্তর লিখতে সহযোগিতা করবেন না: অনলাইন পরীক্ষায় বাচ্চাকে উত্তর লিখতে সহযোগিতা করবেন না। তাকে নিজের মতো করে লিখতে দিন। স্কুলের পরীক্ষায় যেমন একা থেকে সবকিছু লিখে বাসায়ও তেমনটা করতে হবে। বাড়িতে বসে পরীক্ষা দিচ্ছে মানে এই নয় যে, পরীক্ষার গুরুত্ব কমেছে, তা কিন্তু নয়। মনোনিবেশ করতে হবে এ ক্ষেত্রেও।

পরীক্ষায় মনযোগী রাখবেন: সব সময় খেয়াল রাখুন বাচ্চা যেনো পরীক্ষার মাঝে অন্য কিছুতে মন না দিয়ে ফেলে। অনলাইনে খেলা বা সিনেমা দেখতে না শুরু করে দেয়। তাতে তার সময় নষ্ট হবে। পরীক্ষায় লেখার সময় কিন্তু এ ক্ষেত্রেও বাঁধা থাকে আগের মতো।

 

সানশাইন/০৯ জুলাই/রনি

জুলাই ০৯
২০:৩৫ ২০২১

আরও খবর