Daily Sunshine

আড়ানী পৌরমেয়র মুক্তারের বাড়িতে অভিযান:কোটি টাকা অস্ত্র ও মাদকসহ স্ত্রী আটক

Share

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌরসভার মেয়র মুক্তার আলীর বাড়ি থেকে কোটি টাকাসহ বিপুল পরিমাণ মাদক উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় মেয়রের স্ত্রী জেসমিন বেগমসহ তার দুই ভাতিজাকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রাজশাহী জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল ইসলামের নেতৃত্বে গতকাল মঙ্গলবার গভীর রাতে পুলিশ অভিযান চালায় বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

 

এসময় নগদ ৯৪ লাখ ৯৮ হাজার টাকা, চারটি পিস্তল, বিপুল পরিমাণ ইয়াবা ও মদ উদ্ধার করা হয় মেয়রের বাড়ি থেকে। তবে পরিস্থিতি টের পেয়ে গোপন দরজা দিয়ে পালিয়ে যান পৌরমেয়র মুক্তার আলী। তাকে আটকের চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ।

এর আগে গতকাল রাত নয়টার দিকে পৌর মেয়র মুক্তার আলী আড়ানী বাজারের পল্লী চিকিৎসক জানারুল ইসলামের দোকানে প্রবেশ করে তাকে প্রথমে মারপিট করেন। এরপর মেয়রের নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসীরা ওই বাজারের আরেক পল্লী চিকিৎসক মনোয়ারুল ইসলাম, তার স্ত্রী দিলরুবা এবং ৭ বছরের শিশু সন্তান অয়নক মারপিট করে। এ ঘটনায় আহত মনোয়ারুল ইসলামকে রাতেই বাঘা থানা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। এরপর রাতেই পুলিশকে অভিযোগ করা হলে এসপি মাসুদ হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ মেয়র মুক্তার আলীর বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় বিপুল পরিমাণ মাদক, নগদ ৯৪ লাখ টাকা এবং চারটি অস্ত্রসহ মেয়রের স্ত্রী এবং দুই ভাতিজাকে আটক করে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গতকাল বিকেলে ভ্রাম্যমাণ আদালত মেয়রের ছেলের শ্বশুর শামীম হোসেনের ওষুধের দোকানে অভিযান চালান। এসময় মেয়রের বেয়াই শামীমের নিকট থেকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মেয়র মুক্তার আলী রাতে ওই বাজারের অপর দুই পল্লী চিকিৎসক জানারুল ও মনোয়ারুলের দোকানে প্রবেশ করে তাদেরকে মারপিট করেন। এরপর পুলিশ গভীর রাতে মেয়র মুক্তারের বাড়িতে অভিযান চালায়।

 

জুলাই ০৭
১২:৫৬ ২০২১

আরও খবর