Daily Sunshine

৬ মাস আগেই হত্যার প্রস্তুতি শুরু করেন মেহজাবিন

Share

সানশাইন ডেস্ক:রাজধানীর কদমতলীতে মা, বাবা ও বোনকে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার মেহজাবিন ইসলাম মুন ছয় মাস আগে থেকেই হত্যার প্রস্তুতি শুরু করেন। গত শুক্রবার রাতে তিনজনকে বিষ খাইয়ে হত্যাকাণ্ড বাস্তবায়ন করেন তিনি।

দীর্ঘ সময়ে কীভাবে হত্যার প্রস্তুতি নেন সে বিষয়ে পুলিশকে তথ্য দিয়েছেন মেহজাবিন।

জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশকে তিনি জানান, গত ছয় মাসে একটি-দুটি করে ঘুমের ওষুধ সংগ্রহ করেন তিনি। শুক্রবার রাতে সেই ট্যাবলেট গুঁড়া করে চা, কফি ও পানিতে মিশিয়ে দেন। সেগুলো খেয়ে সবাই অচেতন হয়ে পড়লে শ্বাসরোধে তিনজনকে হত্যা করেন।

পুলিশকে মেহজাবিন এও জানান, দুই মাস আগেও একবার তরমুজের জুসে ঘুমের ওষুধ মিশিয়ে পরিবারের সদস্যদের হত্যার চেষ্টা চালিয়েছিলেন।

গত শনিবার সকালে কদমতলীর মুরাদপুর রজ্জব আলী সরদার রোডের পাঁচতলা বাড়ির দ্বিতীয়তলা থেকে মাসুদ রানা (৫০), তার স্ত্রী মৌসুমী ইসলাম (৪০) ও মেয়ে জান্নাতুল ইসলাম মোহিনীর (২০) লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

অচেতন অবস্থায় মেহজাবিনের স্বামী শফিকুল ইসলাম ও মেয়ে তৃপ্তিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় মেহজাবিন ও তার স্বামী শফিকুলের বিরুদ্ধে কদমতলী থানায় মামলা হয়েছে। রোববার মেহজাবিনের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। চিকিৎসাধীন শফিকুলকেও এ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

পুলিশের ওয়ারী বিভাগের উপকমিশনার শাহ ইফতেখার আহমেদ বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে মুন একাই তিনজনকে হত্যার কথা স্বীকার করেন। তবে তার স্বজনরা বলছেন, অর্থ ও সম্পত্তির জন্য এ হত্যাকাণ্ড। এতে শফিকুলও জড়িত। এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়ার জন্য মুনকে রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। তার স্বামীকেও আজকালের মধ্যে রিমান্ডে নেওয়া হবে।

সানশাইন/জুন ২১/ইউ

জুন ২১
১৭:২৪ ২০২১

আরও খবর