Daily Sunshine

ওবায়দুল কাদেরকে কটুক্তিকারী নোবিপ্রবি কর্মকর্তার মদ পানের ছবি ভাইরাল,আটক

Share
নোবিপ্রবি প্রতিনিধি:বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কটুক্তির অভিযোগে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) পরিকল্পনা উন্নয়ন বিভাগের (ডিপিডি) সহকারী পরিচালক জিয়াউর রহমান সম্রাটকে (৩৫) আটক করা হয়েছে।
এদিকে সম্প্রতি তার মদপানের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। ছবিতে দেখা যায় তিনি একটি বৈদ্যুতিক খাম্বার উপর বসে খোলামেলা ভাবে মদ পান করছেন।
অভিযুক্ত জিয়াউর রহমান সম্রাট কবিরহাট উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের উত্তমপুর লামছি গ্রামের ইউসুফ ভূঁইয়ার ছেলে।
গত ১৭ই জুন রাতে সম্রাট ফেসবুকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করেন। এ ঘটনায় নোয়াখালীর সর্বত্র প্রতিবাদ জানিয়ে  সম্রাটকে গ্রেফতারের আহ্বান জানান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।
এরপর আজ ১৯ জুন (শনিবার) দুপুর ২টায় উপজেলার ঘোষবাগ ইউনিয়নের শাহাজিরহাট সংলগ্ন এলাকা থেকে তাকে  আটক করে পুলিশ।
কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) টমাস বড়ুয়া সম্রাটকে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এর আগে,কবিরহাট উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. নজরুল ইসলাম
 শুক্রবার(১৮ই জুন)  রাতে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে ফেসবুকে কটূক্তির অভিযোগে সম্রাটের বিরুদ্ধে কবিরহাট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
লিখিত অভিযোগে বলা হয়েছে, গত (১৭ জুন) রাত ১২টা ৮মিনিটে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) পরিকল্পনা উন্নয়ন ও ওয়ার্কস ডিপার্টমেন্টের সহকারী পরিচালক জিয়াউর রহমান সম্রাট ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট (সম্রাট এসএফ) থেকে ওবায়দুল কাদেরকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ স্ট্যাটাস দেন। এতে ওবায়দুল কাদেরের দীর্ঘদিনের অর্জিত সম্মান ক্ষুণ্ন হয়। বিবাদী নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী পরিচালক পদে কর্মরত থাকা অবস্থায় সরকারের মন্ত্রীর বিরুদ্ধে কুরুচিপূর্ণ স্ট্যাটাস দিয়ে রাষ্ট্রীয় শিষ্টাচার বহির্ভূত আচরণ করেছেন।
তবে বৃহস্পতিবার রাতে সম্রাট তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘প্রিয় নোয়াখালীবাসী, গতকাল রাতে আমার ফেসবুক আইডি হ্যাক করে মাননীয় মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধে আপত্তিকর একটা পোস্ট দেওয়া হয়। পরে আইডি পুনরুদ্ধার করে আমি পোস্টটা ডিলিট করি। এমন অনাকাঙ্ক্ষিত বিষয়ে আমি বিব্রতবোধ করছি,সঙ্গে দুঃখও প্রকাশ করছি। আমি মুজিব আদর্শের সৈনিক, নিজে পোস্ট দিলে ডিলিট করতাম না। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।’
এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ দিদার-উল-আলম বলেন, ‘বিষয়টি আমি জানতে পেরেছি। এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা পরিপন্থী কাজ। আমরা খুব শিগগিরই বিষয়টি নিয়ে বসে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ব্যবস্থা নেব। ’
এছাড়া তার বিরুদ্ধে নিয়মিত অফিস না করার যে অভিযোগ রয়েছে, সে বিষয়টিও খতিয়ে দেখা হবে বলে জানান উপাচার্য।
জুন ২০
২১:২৪ ২০২১

আরও খবর