Daily Sunshine

আবারও কর্মচঞ্চল হয়ে উঠেছে সান্তাহার জংশন

Share

সানশাইন ডেস্ক: বগুড়ার সান্তাহারে ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন জংশন ষ্টেশন করোনার কারনে লকডাউন থাকায় সব ট্রেন দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল। সরকারের সিদ্ধান্ত মোতাবেক সোমবার থেকে আবারও ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। দীর্ঘদিন বন্ধ থাকা চায়ের ষ্টলগুলি আবার খুলেছে। ষ্টেশনের শ্রমিকরা আবার কাজে যোগ দিয়েছে। তাঁদের মুখে দেখা দিয়েছে হাঁসি। ষ্টেশনের দুটি বুক ষ্টল আবারও খুলেছে। সীমিত আকারে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে আজ সোমবার থেকে কয়েকটি ট্রেন চলাচল করবে। তবে ট্রেনের টিকিট কাউন্টারের পরিবর্তে অনলাইনে পাওয়া যাচ্ছে। তাই বন্ধ ষ্টেশনে আবার কর্মচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে।

বিশ্বব্যাপি মহামারি করোনা ভাইরাসের কারনে সরকার লকডাউন ঘোষনা করায় বন্ধ হয়ে যায় ট্রেন চলাচল। ফলে রেল ষ্টেশনের সাথে সংশ্লিষ্ট শ্রমিক, পেপার বিক্রেতা হকার, চয়ের ষ্টলগুলির শ্রমিক বেকার হয়ে পড়ে। স্থবির হয়ে পড়ে বিশাল এলাকা জুড়ে অবস্থিত সান্তাহার জংশন ষ্টেশন। বৃটিশ আমলে নির্মিত চালাচলকারি এই ঐতিহ্যবাহি ষ্টেশনে ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। তবে ট্রেনের টিকিট নির্দিষ্ট অফিস থেকে দেওয়া হবে না। টিকিট বিক্রি হবে অনলাইনে। দীর্ঘদিন ট্রেন বন্ধ থাকায় এত দিন যাত্রীরা নানা রকম সমস্যায় পড়েছিল।

সান্তাহার ষ্টেশনে আন্তঃনগর রুপসা ট্রেনের জন্য অপেক্ষা করছিল চাকুরীজীবী ইলিয়াস আলী তিনি জানায়, দীর্ঘদিন ট্রেন বন্ধ থাকায় এতদিন মোটরসাইকেলে অফিসে যাতায়াত করেছি। আজ ট্রেন চালু হওয়ায় ভাল লাগছে।

আব্দুর রাজ্জাক নামে একজন শ্রমিক বলেন, দীর্ঘদিন ট্রেন বন্ধ থাকায় এনজিও থেকে টাকা ঋণ করে সংসার চালিয়েছি। আজ থেকে ট্রেন চালু হওয়ায় আয় রোজগার হবে। তবে সকল ট্রেনের টিকিট অনলাইনে বিক্রি হবে। এক আসন ফাকা রেখে অনলাইনে ৫০% টিকিট বিক্রি হবে।

সান্তাহার ষ্টেশন মাষ্টার অফিস সূত্রে জানা গেছে, কয়েকদিন থেকে পুরো ষ্টেশন পরিস্কার ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকল প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। টিকিট ছাড়া কোন ব্যাক্তি প্লাটফর্মে প্রবেশ করতে পারবে না। সান্তাহার জংশন ষ্টেশন মাষ্টার মোঃ হাবিবুর রহমান হাবিব জানায়, সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে সোমবার থেকে ট্রেন চলাচল শুরু হয়েছে। সকল ট্রেন নির্ধারিত সময়ে চলাচল করছে।

সানশাইন/২৪ মে/রনি

মে ২৪
২০:৩৫ ২০২১

আরও খবর