Daily Sunshine

বাবুনগরীকে প্রধানমন্ত্রী করার পরিকল্পনা ছিল

Share

সানশাইন ডেস্ক;হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর আল্লামা জুনাইদ আহমদ বাবুনগরী।
শাপলা চত্বরকাণ্ডের দিন একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় হেফাজত নেতাদের মধ্যে। সেখানে সরকারের পতন ঘটিয়ে রাষ্ট্র ক্ষমতায় যেতে পারলে তালেবান স্টাইলের শাসন ব্যবস্থা প্রচলনের কথা হয়। যেখানে বাবুনগরীকে প্রধানমন্ত্রী ও আহমেদ শফিকে রাষ্ট্রপতি করাসহ শীর্ষ নেতাদের কি দায়িত্ব দেয়া হবে বিষয়টি উঠে আসে। হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হককে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদে এমনই তথ্য উঠে এসেছে।

রবিবার এ বিষয়ে সদ্য অতিরিক্ত ডিআইজি হিসেবে পদায়ন হওয়া মতিঝিল বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সৈয়দ নুরুল ইসলাম ভোরের কাগজকে বলেন, শাপলা চত্বরের মামলায় রিমান্ডে মামুনুল হক তাদের জানিয়েছেন, সরকার পতনে ৫ মের আগে বিএনপি-জামায়াত নেতাদের নিয়ে একটি বৈঠক হয়। তবে ২০১৩ সালের ৫ মে গাবতলীতে ছিলেন তিনি। যাতে ঢাকা শহরে কোনো যানবাহন প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়েই নির্দেশনা দেয়াই দায়িত্ব ছিল তার। দুপুরের পর সেখান থেকে এসে একটি বৈঠকে অংশগ্রহণ করেন তিনি। সেখানে আলোচ্যসূচি ছিল সরকারের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ প্রতিরোধ গড়ে তোলা।

এছাড়া সরকারের পতন ঘটিয়ে রাষ্ট্র ক্ষমতায় যেতে পারলে তালেবান স্টাইলের শাসন ব্যবস্থা প্রচলনের মাধ্যমে বাবুনগরীকে প্রধানমন্ত্রী ও প্রয়াত আহমেদ শফিকে রাষ্ট্রপতি করাসহ শীর্ষ নেতাদের কি দায়িত্ব দেয়া হবে। মামুনুলকে কোনো পদ দেয়ার কথা হয়েছিল কিনা- এমন প্রশ্নের উত্তরে ডিসি বলেন, সে জানিয়েছে ওই সময় তার বয়স অনেক কম ছিল। মামুনুলকে পদ দেয়ার বিষয়ে কোনো কথা হয়নি। তবে ওই দিন তিনি দুবার স্টেজে উঠেছিলেন বক্তৃতা করার জন্য। তিনি আরো

বলেন, তদন্তে জুনায়েদ বাবুনগরীর সম্পৃক্ততা পেলে তাকেও বিচারের আওতায় আনা হবে। হেফাজতে তার কী অবস্থান, সেটা আমরা বিবেচনায় নেব না। আমরা দেখব, অপরাধীর মানদণ্ডে তিনি অপরাধী কিনা। ২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকা অবরোধের নামে শাপলা চত্বরে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে তাণ্ডব চালায় হেফাজতে ইসলাম। এ ঘটনায় পরদিন গ্রেপ্তার করা হয় সংগঠনটির তৎকালীন মহাসচিব, বর্তমান আমির জুনায়েদ বাবুনগরীকে। তিন মামলায় ২২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হয় তার। ১৩ দিনের রিমান্ড শেষে অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। তড়িঘড়ি করে জামিনে মুক্ত হন বাবুনগরী। সম্প্রতি স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে সহিংতার মামলায় সংগঠনটির দুই ডজন নেতা গ্রেপ্তার রয়েছেন। এর মধ্যে মামুনুল হকসহ ৯ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পল্টন ও মতিঝিল থানা পুলিশ। এদিকে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও থানায় হওয়া ধর্ষণ, ভাঙচুরের তিন মামলায় হেফাজত নেতা মামুনুল হকের ২৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছে পুলিশ। আগামী ৯ মে এ বিষয়ে আদেশ দেবেন আদালত।
সানশাইন/মে ৩/ইউ
সূত্র:ভোরের কাগজ

 

মে ০৩
১১:৪১ ২০২১

আরও খবর