Daily Sunshine

করোনায় কাঁপছে ভারত, তবুও চলবে আইপিএল

Share

সানশাইন ডেস্ক:করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতার মধ্যে আইপিএল ম্যাচ আয়োজন নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা চলছে চারদিকে
ভারতে কোভিডে মৃতের সংখ্যা এতই বাড়ছে যে শ্মশানে চিতার আগুন নিভছেই না। কোভিডের ‘ডাবল’বা ‘ট্রিপল মিউটেশন’ভেরিয়েন্টের কারণে দেশটিতে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। এরই মধ্যে দেশটিতে চলছে আইপিএল ম্যাচ। করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতার মধ্যে আইপিএল ম্যাচ আয়োজন নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা চলছে চারদিকে। সেই সমালোচনা আরো উসকে দিয়েছেন কয়েকজন ক্রিকেটার এ প্রতিযোগিতা থেকে সরে দাঁড়িয়ে। ভারতের রবিচন্দ্রন অশ্বিনের সঙ্গে আইপিএলে ছেড়েছেন তিন অস্ট্রেলিয়ান অ্যাডাম জাম্পা, কেন রিচার্ডসন ও অ্যান্ড্রু টাই।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, এক পাশে মৃত্যুর মিছিল, অন্য পাশে আইপিএলের আলোর ঝলকানি। বড্ড বেমানান চিত্র। করোনা আক্রান্তদের আহাজারি, হাহাকারে ভারী হয়ে উঠেছে ভারতের বাতাস। এমন পরিস্থিতিতে আইপিএলের রঙিন আয়োজনের কড়া সমালোচনা করছেন অনেকেই। ব্যতিক্রম নয় গণমাধ্যমও। প্রতিবাদের অংশ হিসেবে ভারতের প্রথম সারির গণমাধ্যম নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস আইপিএলের খবর প্রচার বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে।

তবে আয়োজকরা নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল। তারা জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতি যেমনই হোক না কেন, আইপিএল আয়োজনে কোনো সমস্যা হবে না। বায়ো সিকিউর বাবলের মধ্যে থেকেই আয়োজন শেষ করতে চায় তারা। এদিকে আইপিএল আয়োজকদের সমালোচনা করেছেন পাকিস্তানের সাবেক পেসার শোয়েব আখতার। করোনার ভয়াবহতা বিবেচনা করে আইপিএল বন্ধের পক্ষে মত দিয়েছেন তিনি।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে দেয়া এক ভিডিও বার্তায় শোয়েব আখতার বলেছেন, ‘ভারত এখন ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। তাদের এখন আইপিএল বন্ধ করে দেয়া উচিত কারণ দেশটি পুড়ছে। পাকিস্তান সুপার লিগও (পিএসএল) হওয়া উচিত নয়।’ এছাড়া ভারতের বর্তমান অবস্থায় আইপিএলের চেয়ে অক্সিজেন ট্যাংক অধিক জরুরি। তাই আইপিএল বন্ধ করে, সেই টাকা অক্সিজেন কেনার পরামর্শ দিয়েছেন শোয়েব। তিনি আরো বলেন, এখন অক্সিজেনেই বাঁচবে মানুষের জীবন। খেলাধুলার আপাতত প্রয়োজন নেই। আইপিএল এখন গুরুত্বপূর্ণ নয়। এটার পেছনে খরচ করা টাকা দিয়ে মানুষগু লোকে বাঁচান।

করোনায় ভয়াবহ পরিস্থিতির কবলে পড়েছে ভারত। প্রতিদিন প্রায় তিন লাখের বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন এই ভাইরাসে। এর মধ্যেই ভারতে দেখা দিয়েছে নানামুখী সংকট। হাসপাতাল গুলোয় অক্সিজেনের অভাব তীব্রভাবে দেখা দিয়েছে। এমন অবস্থায় ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে অক্সিজেন কিনতে ৫০ হাজার ইউএস ডলার দান করেছেন অস্ট্রেলিয়ার তারকা পেসার প্যাট কামিন্স।

বর্তমানে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে আইপিএল খেলতে ভারতেই রয়েছেন কামিন্স। চেন্নাই, মুম্বাইয়ের পর এবার আহমেদাবাদে পৌঁছে গিয়েছে কেকেআর। জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকলেও করোনার ভয়াবহতা খুব কাছ থেকেই দেখছেন তারা। আর এই পরিস্থিতিতে আরও অনেকের মতো সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন অস্ট্রেলিয়ার তারকা পেসার প্যাট কামিন্সও। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে নিজের এ দানের কথা জানিয়েছেন কামিন্স। একই সঙ্গে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বানও জানিয়েছেন তিনি।

এবার আইপিএল শুরুর আগে কোভিড-১৯ ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছিলেন কিছু খেলোয়াড়। যেমন দিল্লি ক্যাপিটালসের অক্ষর প্যাটেল, রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর দেবদূত পাড্ডিকাল। যদিও জৈব সুরক্ষিত পরিবেশ অটুট রেখে চলছে আইপিএল। কিন্তু ভারতে করোনার সংক্রমণ এখন ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে।

আইপিএলে খেলা ক্রিকেটাররাও আছেন দ্বিধায়। রবিচন্দ্রন অশ্বিন তো জানিয়ে দিয়েছেন, পরিবারের পাশে থাকতে এবারের আইপিএলে তিনি আর খেলছেন না। দিল্লি ক্যাপিটালসের এই বোলিং অলরাউন্ডার আইপিএল থেকে সরে যাওয়ার আগে সেদিনই এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট ছাড়ার সিদ্ধান্ত নেন রাজস্থান রয়্যালসের অস্ট্রেলিয়ান পেসার অ্যান্ড্রু টাই।

ভারতে কোভিড পরিস্থিতি ধীরে ধীরে আরো ভয়ংকর হচ্ছে, এর মধ্যে ঠিক সময়ে দেশে পরিবারের কাছে ফিরতে পারবেন কিনা, এ নিয়ে দ্বিধায় ভুগতে ভুগতে শেষ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ায় ফিরে যান টাই। তখন সংবাদমাধ্যম জানিয়েছিল আরো দুজন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার আইপিএল ছেড়ে দেশে ফিরতে চান।

ভারতে দিন দিন করোনা পরিস্থিতি আরো খারাপ হচ্ছে। এ কারণে যশ খ্যাতির কথা মাথা থেকে ফেলে দিয়ে বেশ কয়েকজন দেশি-বিদেশি ক্রিকেটার মাঝ পথেই আইপিএল থেকে নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নিচ্ছেন। তারা মূলত বাসায় থেকে নিজেদের নিরাপদ রাখার বিষয়টিকে গুরুত্ব দিচ্ছেন। ববিবার পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে জমজমাট এ প্রতিযোগিতা থেকে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন পাঁচ ক্রিকেটার। এর মধ্যে চারজন হলেন বিদেশি। বাকি একজন ভারতীয়। দুদিন আগে অজি পেসার অ্যান্ড্রু টাই ও ইংলিশ ব্যাটসম্যান লিয়াম লিভিংস্টোন নিজদেরকে সরিয়ে নেন।

রবিবার এ তালিকায় নাম লিখিয়েছেন দিল্লির রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও দুই অস্ট্রেলিয়ান পেসার কেন রিচার্ডসন এবং লেগস্পিনার অ্যাডাম জাম্পা। তারা দুজনই রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর খেলোয়াড়। ফ্র্যাঞ্চাইজিটির দেয়া আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে জানা গেছে এ খবর।

বেঙ্গালুরুর টুইটার হ্যান্ডলারে জানানো হয়েছেন, ‘ব্যক্তিগত কারণে অস্ট্রেলিয়া ফিরে যাচ্ছেন অ্যাডাম জাম্পা ও কেন রিচার্ডসন। চলতি আইপিএলে তাদের আর পাওয়া যাবে না। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ম্যানেজমেন্ট তাদের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানায় এবং সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে।’

তাদের দুজনের আগে গত রবিবার ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে আইপিএল ছেড়ে যান রাজস্থান রয়্যালসের অস্ট্রেলিয়ান পেসার অ্যান্ড্রু টাই। গত সপ্তাহে বায়ো বাবলের মানসিক অবসাদের কারণে দেশে ফিরে গেছেন রাজস্থানের ইংলিশ ব্যাটসম্যান লিয়াম লিভিংস্টোনও।

তাদের পর প্রথম ভারতীয় হিসেবে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন দিল্লির রবিচন্দ্রন অশ্বিন। রবিবার রাতে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে দিল্লির শ্বাসরুদ্ধকর সুপার ওভারে জয়ের পর নিজের সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন অশ্বিন।

আসরের নিজেদের প্রথম তিন ম্যাচ মুম্বাইয়ে খেলেছে দিল্লি। এরপর দুই ম্যাচ খেলল চেন্নাইয়ে। এখানেই বসবাস অশ্বিনের পরিবারের। মঙ্গলবার দিল্লির পরের ম্যাচের ভেন্যু আহমেদাবাদ। তবে দলের সঙ্গে সেখানে যাবেন না অশ্বিন। বরং তামিলনাড়ুতেই থেকে যাবেন, চলে যাবেন পরিবারের কাছে।

এদিকে আইপিএল কর্তৃপক্ষ বলেছে, তারা যত সমস্যাই হোক টুর্নামেন্ট শেষ করবে। এজন্য অবশ্য তাদের সমালোচনার মুখেও পড়তে হচ্ছে। কিন্তু সেই সমালোচনাকে পাত্তা দিচ্ছিল না তারা। এখন বেশ কয়েকজন নামী খেলোয়াড় নিজেদের নাম প্রত্যাহার করে নেয়ায় আইপিএল কর্তৃপক্ষ বেশ ভালোই বিপাকে পড়তে যাচ্ছে।
সানশাইন/এপ্রিল/২৭/ইউ

 

এপ্রিল ২৭
১১:০০ ২০২১

আরও খবর