Daily Sunshine

সুলভ মূল্যে নিরাপদ মাছ, রাজধানীতে কখন কোথায় থাকবে ফিশভ্যান

Share

হাত বাড়ালেই সুলভ মূল্যে কেনা যাবে ফরমালিন মুক্ত সামুদ্রিক ও মিঠাপানির বিভিন্ন জাতের সতেজ মাছ। রাজধানীর ১৬টি এলাকায় (পয়েন্টে) ভ্রাম্যমাণ ব্যবস্থাপনায় ফিশভ্যানে মাছ বিক্রি করছে বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশন।

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকারের দেওয়া বিধিনিষেধ চলছে। অন্যদিকে শুরু হয়েছে রমজান মাস। এসময়ে রাজধানীবাসী যেন সহজেই সুলভ মূল্যে ফরমালিন মুক্ত সামুদ্রিক ও মিঠাপানির সতেজ মাছ কিনতে পারেন সে লক্ষ্যে উদ্যোগটি নিয়েছে মৎস্য করপোরেশন। এতে নাগরিকদের প্রাণিজ আমিষের চাহিদাও পূরণ হবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

dhakapost
মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশনের ফিশভ্যান

বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশন সূত্র জানায়, রাজধানীর ১৬টি স্থানে ৮টি ভ্রাম্যমাণ ফিশভ্যানে করে বিভিন্ন সময়ে মাছ বিক্রি করা হচ্ছে।

মাছ বিক্রির এলাকা ও সময়-
১। ইস্কাটন লেডিস ক্লাব সংলগ্ন (সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত)। ২। মিরপুর ডিওএইচএস (সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত)। ৩। মহাখালী ডিওএইচএস (সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত)। ৪। ধানমন্ডি (সকাল ৯টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত)। ৫। গুলশান (সকাল ৯ টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত)

৬। বনানী ডিওএইচএস (সকাল ৯টা থেকে ১২টা পর্যন্ত)। ৭। কৃষকের বাজার সেচ ভবন (সকাল ৯টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত)। ৮। শংকর (সকাল ৯টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত)। ৯। সচিবালয় গেট (দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত)। ১০। আজিমপুর কলোনি (দুপুর ১টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত)। ১১। সেগুনবাগিচা (দুদক অফিসের সামনে) (দুপুর সাড়ে  ১২টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত)।

১২। এজিবি কলোনি, মতিঝিল (দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত)। ১৩। মিরপুর ডিওএইচএস (নতুন ভবন) (দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত)। ১৪। মোহাম্মদপুর মা ও শিশু হাসপাতাল সংলগ্ন (দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত)। ১৫। ধানমন্ডি-২৮ (বেলা সাড়ে ১১টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত)। ১৬। বারিধারা (দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত)।

dhakapost
ফিশভ্যানে ফরমালিন মুক্ত বিভিন্ন জাতের মাছ বিক্রি করছে মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশন

বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশনের সহকারী মার্কেটিং অফিসার শ ম সাদেক মিয়া সরকার ঢাকা পোস্টকে বলেন, অবতরণ কেন্দ্রগুলো থেকে মাছ সংগ্রহ করা হয়। গত কয়েক বছর ধরে রাজধানীর কিছু পয়েন্টে বিক্রি করা হচ্ছে। তবে করোনা ও রমজান উপলক্ষে ১২ এপ্রিল থেকে আমরা বিক্রয় কর্মসূচি শুরু করেছি।

তিনি জানান, আগের পয়েন্টগুলোতে বেশি বিক্রি হচ্ছে। নতুন পয়েন্টে এখনও সেভাবে সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। একেক পয়েন্টে একেক পরিমাণে মাছ বিক্রি হয়। এ মাছ কিনে ক্রেতারা নিশ্চিন্তে খেতে পারেন। নিরাপদ মাছ খেতে যে কেউ আমাদের কাছ থেকে মাছ কিনতে পারেন। প্রয়োজনে যোগাযোগ করা যাবে ০১৭৯৬-১৬৫৭৯৪ ও ০১৭৫৭-১৭০৮৭০ মোবাইল নম্বরে।

এপ্রিল ১৫
১৩:০১ ২০২১

আরও খবর