Daily Sunshine

বাড়িতে ওষুধ ভাল রাখবেন যেভাবে

Share

সানশাইন ডেস্ক : বাড়িতে সাধারণত ওষুধ অনেকদিন ধরে হয় কোন জার বা বদ্ধ একটা প্লাস্টিকের বাক্সে জমা করে রেখে দেয়া হয়। তবে প্রায়শই স্যাঁতসেঁতে বর্ষায় কিংবা ঠিক মতো আলো-বাতাস না পাওয়ায় অনেকদিনের জন্য আনা এসব ওষুধ নষ্ট হয়। ফলে মেয়াদ থাকার পরেও আমাদের বাধ্য হয়েই ফেলে দিতে হয় সেসব দামী পথ্য। তাহলে, বাড়িতে ওষুধ ভাল রাখার উপায় কী?

বাড়িতে ওষুধ সংরক্ষণ করার জন্য মানতে হবে কয়েকটি নিয়ম। তাহলে ওষুধের মেয়াদ পযর্ন্ত মান ঠিক রাখা যাবে ওষুধের।

  • প্লাস্টিকের ব্যাগে ওষুধ রাখা যাবে না। রাখলে ওষুধের প্রভাব কমে যেতে পারে। ইনসুলিন ও লিকুইড অ্যান্টিবায়োটিকের ক্ষেত্রে বেশি সাবধানতা নেওয়া উচিত। ঘরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় সাধারণত ৩০দিন পর্যন্ত ঠিক থাকে ইনসুলিন।
  • শুধু আলো, পানি, বাতাস নয়, মানুষের জীবনের আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ ওষুধ। সর্দি, কাশি, জ্বর, মাথাব্যথা নিত্যসঙ্গী। তাই বাড়িতে হাতের কাছেই মজুত রাখতে হয় ওষুধ।
  •  ঠান্ডা এবং শুকনো জায়গায় রাখতে হবে ওষুধ। ড্রেসার ড্রয়ার কিংবা কিচেন ক্যাবিনেটে রাখা যেতে পারে ওষুধ। তবে, আগুন, স্টোভ, সিঙ্ক এবং গরম কোনও সরঞ্জাম থেকে দূরে রাখতে হবে। স্টোরেজ বক্স বা তাকে রাখা যেতে পারে ওষুধ। না হলে মেয়াদ শেষের আগেই নষ্ট হয়ে যেতে পারে ওষুধ।
  • একটি পাত্রে অনেক ওষুধ একসঙ্গে না রাখারই পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকরা। না হলে মেয়াদের আগেই বদলে যেতে পারে ওষুধের রং, গন্ধ।

 

সানশাইন/২৬ জানুয়ারি/রনি

জানুয়ারি ২৬
১৮:৫০ ২০২১

আরও খবর

বিশেষ সংবাদ

প্রাণ ফিরে পাচ্ছে রাবির টুকিটাকি চত্বর

প্রাণ ফিরে পাচ্ছে রাবির টুকিটাকি চত্বর

স্টাফ রিপোর্টার ,রাবি: টুকিটাকি চত্বর। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের চিরপরিচিত একটি চত্বর। প্রায় ৩৫ বছর আগে বিশ্ববিদ্যালয়টির লাইব্রেরি চত্বরে ‘টুকিটাকি’ নামের ছোট্ট একটি দোকান চালু হয়। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মুখে মুখে টুকিটাকি নামটি ছড়িয়ে পড়ে। দোকানটি ভীষণ জনপ্রিয়তা পায়। ফলে সবার অজান্তেই একসময় লাইব্রেরি চত্বরটির নাম হয়ে যায়

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

আসছে ৫৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি

আসছে ৫৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি

সানশাইন ডেস্ক : মান্থলি পেমেন্ট অর্ডারভুক্ত (এমপিও) শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৫৫ হাজার শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হবে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পেলে চলতি মাসেই গণবিজ্ঞপ্তি জারি করতে পারে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। এনটিআরসিএ সূত্রে জানা গেছে, সারা দেশের এমপিওভুক্ত স্কুল-কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রায় ৫৭ হাজার ৩৬০টি শূন্য পদের তালিকা

বিস্তারিত