Daily Sunshine

ডা. সাবরিনাকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ

Share

সানশাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা নিয়ে প্রতারণা করে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা চৌধুরীকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার (২৪ আগস্ট) সকাল সাড়ে ১০ থেকে কেরানীগঞ্জে অবস্থিতি কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদ করছে সংস্থাটির অনুসন্ধান কর্মকর্তা উপপরিচালক সেলিনা আখতার মনি।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা (পরিচালক) প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে রোববার (২৩ আগস্ট) ডা. সাবরিনার স্বামী আরিফুল হক চৌধুরীকে জিজ্ঞাসাবাদ করে দুদক। জিজ্ঞাসাবাদে করোনার নমুনা পরীক্ষা ও আত্মসাতকৃত অর্থের বিষয়ে সুনির্দিষ্টভাবে জানতে চাইলে আরিফ তা দিতে পারেননি বলে জানা গেছে।

গত ২০ আগস্ট সাবরিনাসহ ৬ জনকে জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি পায় দুদক। সাবরিনা ও আরিফুল ছাড়া অন্যান্যরা হলেন, তাদের সহযোগী আ স ম সাঈদ চৌধুরী, হুমায়ুন কবির ওরফে হিমু ও তার স্ত্রী তানজীনা পাটোয়ারী এবং প্রতিষ্ঠানটির ট্রেড লাইন্সেসের স্বত্বাধিকারী জেবুন্নেছা রিমা।

আসামিরা অন্য মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে রয়েছেন। এজন্য তাদের জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের প্রার্থনা করে দুদক। করোনার রিপোর্ট জালিয়াতির কারণে সাবরিনা চৌধুরীর স্বামী আরিফ চৌধুরীসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)।

সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে বহাল থেকে ক্ষমতার অপব্যবহার করে তার স্বামী আরিফ চৌধুরীর সহায়তায় করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা সংগ্রহ করেন ডা. সাবরিনা চৌধুরী। ১৫ হাজার ৪৬০টি জাল প্রতিবেদন তৈরি ও সরবরাহ করে তারা ৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নেন বলে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া, অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে।

সানশাইন/২৪ আগস্ট/এমওআর

আগস্ট ২৪
১২:৪০ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী মহানগরীর শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বরে দাঁড়িয়ে আছে মাস্তুল আকৃতির মজবুত দুইটি পোল। প্রতিটি পোলের উপর রিং বসিয়ে তার চতুরদিকে বসানো হয়েছে উচ্চমানের এলইডি লাইট। আর সেই লাইটের আলোয় আলোকিত বিস্তৃত এলাকা। শুধু শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বর নয়, এভাবে মহানগরীর আরো গুরুত্বপূর্ণ ১৪টি চত্বর আলোকিত হয় প্রতি

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সানশাইন ডেস্ক : করোনা মহামারিতে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার সঙ্গে স্থগিত ছিল সরকারি-বেসরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ কয়েক মাসে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পায়নি দেশের শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠী। অংশ নিতে পারেনি কোনো নিয়োগ পরীক্ষাতেও। অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি চাকরির আবেদনে সুযোগ শেষ হয়ে যায় তাদের। তবে এ দুর্যোগকালীন

বিস্তারিত