Daily Sunshine

টিকা উৎপাদন শুরু করেছে রাশিয়া

Share

সানশাইন ডেস্ক : রাশিয়া তাদের কোভিড-১৯ টিকার উৎপাদন শুরু করেছে বলে জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতিতে টিকা উৎপাদন শুরুর বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে বলে শনিবার জানায় বিবিসি।

উৎপাদন শুরু হওয়ায় দুই সপ্তাহের মধ্যে টিকা প্রয়োগ শুরু করা যাবে বলেও বিবৃতিতে দাবি করে রুশ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

স্নায়ুযুদ্ধ যুগে মহাকাশ জয়ে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের কৃত্রিম উপগ্রহ স্পুৎনিক এর নামে রাশিয়া তাদের কোভিড-১৯ টিকার নাম রেখেছে।

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে গত সপ্তাহে রাশিয়া কোভিড-১৯ এর একটি টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দেয়। মস্কোর ‘গামালিয়া ইনস্টিটিউট’র বানানো ওই টিকা মানব দেহে পরীক্ষামূলক ব্যবহারের পর দুই মাসও পেরোয়নি। তৃতীয় বা চূড়ান্ত ধাপের পরীক্ষাও হয়নি। তার আগেই দেশটির সরকার গণহারে টিকা ব্যবহারের অনুমোদন দেওয়া নিয়ে বিশ্বজুড়ে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

তড়িঘড়ি করে কোভিড-১৯ টিকার অনুমোদন দেওয়ায় এবং টিকা সম্পর্কে পর্যাপ্ত তথ্য-উপাত্ত না থাকায় খোদ রাশিয়ার বেশিরভাগ চিকিৎসক এই টিকা নিতে অস্বস্তি বোধ করছেন বলে এক জরিপে উঠে এসেছে। রাশিয়ার তিন হাজারেরও বেশি চিকিৎসক ও স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞর ওপর এ জরিপ চালানো হয়।

টিকাটি তৃতীয় ধাপের চূড়ান্ত পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ না হওয়ায় এই অস্বস্তি, বলেছেন বেশিরভাগ চিকিৎসক।

তবে রুশ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মিখাইল মুরশেঙ্কোর দাবি, তাদের টিকা ‘অত্যন্ত কার্যকর এবং নিরাপদ’। ২০টির মতো দেশ এরইমধ্যে রাশিয়ার টিকা নিতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে বলেও জানিয়েছে মস্কো। সেই দেশগুলোর একটি ভিয়েতনাম।

সানশাইন/১৫ আগস্ট/ রোজি

আগস্ট ১৫
১৯:৫৬ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

আলোকিত সিটি পেয়েছেন মহানগরবাসী

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী মহানগরীর শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বরে দাঁড়িয়ে আছে মাস্তুল আকৃতির মজবুত দুইটি পোল। প্রতিটি পোলের উপর রিং বসিয়ে তার চতুরদিকে বসানো হয়েছে উচ্চমানের এলইডি লাইট। আর সেই লাইটের আলোয় আলোকিত বিস্তৃত এলাকা। শুধু শহীদ এ.এইচ.এম কামারুজ্জামান চত্বর নয়, এভাবে মহানগরীর আরো গুরুত্বপূর্ণ ১৪টি চত্বর আলোকিত হয় প্রতি

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সানশাইন ডেস্ক : করোনা মহামারিতে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার সঙ্গে স্থগিত ছিল সরকারি-বেসরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ কয়েক মাসে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পায়নি দেশের শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠী। অংশ নিতে পারেনি কোনো নিয়োগ পরীক্ষাতেও। অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি চাকরির আবেদনে সুযোগ শেষ হয়ে যায় তাদের। তবে এ দুর্যোগকালীন

বিস্তারিত