Daily Sunshine

নয়াগোলা-পুলিশ লাইন সড়কের বেহাল দশা, পথচারীর দুর্ভোগ

Share

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের প্রবেশ মুখ নায়াগোলা-পুুলিশ লাইন সড়কের বেহাল দশার কবলে দীর্ঘদিন থেকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে পথচারীদের। সড়কটি পাকা হওয়ার দীর্ঘ সময় পেরিয়ে গেলেও রাস্তার দুই ধারে ভালো ড্রেন না থাকায় বা সংস্কার কিংবা মেরামত না করায় বর্তমানে পুরো সড়কের কার্পেটিং উঠে গিয়ে ১ ফিট ২ ফিট পরপর খানাখন্দ সৃষ্টি হয়েছে। পরিস্থিতি এমনই যে, যেন দেখার কেউ নেই!

সড়কে অসংখ্য খানাখন্দ সৃষ্টি হওয়ায় ছোট যানবাহন, ছাত্রছাত্রীসহ জনসাধারণের চলাচল ও দেশের শীর্ষস্থানীয় চালকল মালিকদের সকল প্রকার চাল পরিবহন করা, রহনপুর নাচোল আমনুরা এলাকার বিভিন্ন মালামাল শহরে প্রবেশ করে এই সড়ক দিয়ে। সম্প্রতি বৃষ্টি হওয়ায় দু-তিন দিন ধরে রাস্তাটিতে এক হাটুর অধিক পানি জমে রয়েছে পানি জমে থাকার ফলে অটোরিকশা-ট্রাক মাইক্রো সাইকেল হোন্ডা চালকদের প্রচুর ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

নয়াগোলা পুলিশ লাইন সড়কের বেহাল দশার ব্যাপারে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আতিকুল্লাহ ভূঁঞা জানান, সড়ক ও জনপথ বিভাগের আওতায় বিভিন্ন সড়কের ছোট ছোট খানাখন্দের সৃষ্টি হলে সেগুলো মেরামত করা হয় বা নিয়মিত করা হচ্ছে।

কিন্তু নয়াগোলা-পুলিশ লাইন সড়কে অতিরিক্ত খানাখন্দ এবং বৃষ্টির পানি জমে যাওয়ায় তা মেরামত করা সম্ভব হচ্ছে না। খানাখন্দ পানি জমা দূর করার জন্য রাস্তার দুই পাশে ড্রেনসহ একটি প্ল্যান উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে পাঠিয়েছি আশা করা যায় রাস্তার দুই ধারে ড্রেনসহ প্ল্যান পাস হলে শ্রীঘই রাস্তাটির দুর্ভোগ দূর হবে।

সানশাইন/১৪ আগস্ট/ এমওআর

আগস্ট ১৪
১৩:১৭ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আসাদুজ্জামান নূর : ছোটবেলা থেকেই আঁকাআঁকির প্রতি নেশা ছিল জুবাইদা খাতুন তন্বীর। ক্লাসের ফাঁকে, মন খারাপ থাকলে বা বোরিং লাগলে ছবি আঁকতেন তিনি। কারও ঘরের ওয়ালমেট, পরনের বাহারি পোশাক ইত্যাদি দেখেই এঁকে ফেলতেন হুবহু। এই আঁকাআঁকির প্রতিভাকে কাজে লাগিয়েই হয়েছেন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা। তুলির খোঁচায় পরিধেয় পোশাকে বাহারি নকশা, ছবি, ফুল

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

সানশাইন ডেস্ক : সর্বশেষ ১৯৯১ সালে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানো হয়। এরপর অবসরের বয়স বাড়ানো হলেও প্রবেশের বয়স আর বাড়েনি। বেকারত্ব বেড়ে যাওয়া, সেশনজট, নিয়োগের ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্রতা, অন্যান্য দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা। তবে এ বিষয়ে উদ্যোগ নেয়নি

বিস্তারিত