Daily Sunshine

জন্মাষ্টমীতে মহামারীতে স্রষ্টার কৃপাদৃষ্টি চেয়ে প্রার্থনা

Share

সানশাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাসের মহামারীতে আর্থিক-সামাজিক ‍দুর্বিপাক থেকে উত্তরণের জন্য স্রষ্টার কৃপাদৃষ্টি প্রার্থনা করছেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা।

মহামারীর কারণে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম বৃহৎ এই ধর্মাচার উপলক্ষে প্রতি বছরের মতো এবার যে দেশের কোথাও শোভাযাত্রা বের হচ্ছে না, তা আগেই জানিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ।

হিন্দু পঞ্জিকা অনুযায়ী ভাদ্র মাসের কৃষ্ণপক্ষের অষ্টমী তিথি ও রোহিণী নক্ষত্রে কৃষ্ণ জন্মাষ্টমী পালিত হয়।

এবছর ১১ অগাস্ট মঙ্গলবার সকাল ৯টা ৬ মিনিট থেকে শুরু করে ১২ অগাস্ট সকাল ১১টা ১৬ মিনিট পর্যন্ত জন্মাষ্টমী তিথি থাকবে। অন্যদিকে ১৩ অগাস্ট ভোর ৩টা ২৭ মিনিট থেকে শুরু করে ১৪ অগাস্ট সকাল ৫টা ২২ মিনিট পর্যন্ত রোহিণী নক্ষত্র থাকবে।

আবার একটি বিশেষ যোগও সৃষ্টি হচ্ছে এবছর। চলতি বছরে কৃতিকা নক্ষত্র লাগছে। পাশাপাশি চন্দ্রমা মেষ রাশি ও সূর্য কর্কট রাশিতে থাকবে। কৃতিকা নক্ষত্র ও রাশিগুলির এই পরিস্থিতিতে বৃদ্ধির যোগ রয়েছে।

মঙ্গলবার সকাল থেকে জন্মাষ্টমী উপলক্ষে জাতীয় মন্দির ঢাকেশ্বরী প্রাঙ্গণে শুরু হয় গীতাযজ্ঞ। এই গীতাযজ্ঞ পরিচালনা করেন চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড মঠ ও মিশনের অধ্যক্ষ স্বামী তপনানন্দ গিরি মহারাজ।

তিনি বলেন, ভগবান যুগে যুগে দুষ্টের দমন ও শিষ্টের পালনের জন্য আবির্ভূত হয়েছেন। এই করোনাভাইরাস মহামারীকালে আমরা আজ ভগবান শ্রীকৃষ্ণের আরাধনা করছি। তিনি জরা, ব্যাধিমুক্ত এক পৃথিবী আমাদের দেবেন।

“অজ্ঞানতার অন্ধকার থেকে তিনি গোটা বিশ্বকে মুক্ত করবেন। মহামারীকাল শেষ হলে মানুষে মানুষে প্রীতি ও সদ্ভাবে গোটা পৃথিবী সুন্দরতম হয়ে উঠুক, আজ সে প্রার্থনা করেছি।”

বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মিলন কান্তি দত্ত বলেন, “আজ শুরুতেই আমরা করোনাভাইরাসে পীড়িত এ পৃথিবীর জন্য প্রার্থনা করেছি। স্রষ্টার কৃপায় এ পৃথিবীতে ফের প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে আসুক, সে প্রার্থনা করেছি।”

মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কিশোর রঞ্জন মণ্ডল বলেন, জন্মাষ্টমী উৎসবের মাধ্যমে মূলত শারদীয় দুর্গোৎসবের সূচনা হল। এরপর দুর্গা পূজার আয়োজন নিয়ে বাঙালি হিন্দু ধর্মাবলম্বীরাদের তোড়জোড় শুরু হবে।

“ভগবান শ্রীকৃষ্ণের কাছে আজ আমরা সুস্থ ও সুন্দর এক ধরণীর প্রার্থনা করব।”

কিশোর জানান, রাত ৮টায় ঢাকেশ্বরী মন্দিরে জন্মাষ্টমীর মূল পূজা হবে।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাসমতে, সাড়ে পাঁচ হাজার বছরেরও আগে দ্বাপর যুগে ভাদ্র মাসের শুক্লপক্ষের অষ্টমী তিথিতে সনাতন ধর্মের অবতার হিসেবে প্রেম, সত্য ও ন্যায়-প্রতিষ্ঠার ব্রত নিয়ে পৃথিবীতে আবির্ভূত হন ভগবান শ্রীকৃষ্ণ।

তাদের বিশ্বাস, তিনি অত্যাচারী ও দুর্জনের বিরুদ্ধে শান্তিপ্রিয় ভালো মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ব্রতী হন। দুষ্টের দমন করতে একই ভাবে যুগে যুগে ভগবান শ্রীকৃষ্ণ পৃথিবীতে আসেন। এসে সত্য ও সুন্দর ও ন্যায় প্রতিষ্ঠা করেন।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, জন্মষ্টমী ব্রত (উপবাস) পালনে সমস্ত পাপমোচন ও পূণ্যলাভ হয়। যারা নিয়মিত এ ব্রত পালন করে থাকেন তাদের সৌভাগ্য, আরোগ্য ও সন্তান লাভ হয়। এছাড়া পরকালে স্বর্গ প্রাপ্তি নিশ্চিত হয়।

সানশাইন/১১ আগস্ট/এমওআর

আগস্ট ১১
১৩:৫৫ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

নতুন রূপ পাচ্ছে রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী সোনাদীঘি

নতুন রূপ পাচ্ছে রাজশাহীর ঐতিহ্যবাহী সোনাদীঘি

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের উদ্যোগে মহানগরীর ঐতিহ্যবাহী সোনাদীঘি নতুন রূপ পেতে যাচ্ছে। একই সাথে সোনাদীঘি ফিরে পাচ্ছে তার হারানোর ঐতিহ্য। সোনাদীঘিকে এখন অন্তত তিন দিক থেকে দেখা যাবে। দিঘিকে কেন্দ্র করে গড়ে তোলা হবে পায়ে হাঁটার পথসহ মসজিদ, এমফি থিয়েটার (উন্মুক্ত মঞ্চ) ও তথ্যপ্রযুক্তি

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সরকারি চাকরি প্রার্থীর বয়সে ছাড়

সানশাইন ডেস্ক : করোনা মহামারিতে সাধারণ ছুটিতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রার সঙ্গে স্থগিত ছিল সরকারি-বেসরকারি চাকরির নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ কয়েক মাসে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি পায়নি দেশের শিক্ষিত বেকার জনগোষ্ঠী। অংশ নিতে পারেনি কোনো নিয়োগ পরীক্ষাতেও। অনেকেরই বয়স পেরিয়ে গেছে ৩০ বছর। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি চাকরির আবেদনে সুযোগ শেষ হয়ে যায় তাদের। তবে এ দুর্যোগকালীন

বিস্তারিত