Daily Sunshine

রাজশাহী বিভাগে ১৪ হাজার ছাড়াল করোনা আক্রান্ত

Share

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী বিভাগে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা ১৪ হাজার ছাড়িয়েছে। শুক্রবার (০৭ আগস্ট) নতুন ৩১৪ জন শনাক্ত হওয়ায় বিভাগজুড়ে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৪ হাজার ৯৪ জন।

শনিবার (০৮ আগস্ট) বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডা. গোপেন্দ্রনাথ আচার্য্য এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, রাজশাহী বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ ৫ হাজার ১৮০ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন বগুড়া জেলায়। এছাড়া রাজশাহীতে ৩ হাজার ৫৩২ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৫১৯, নওগাঁয় ৯৯০, নাটোরে ৬২৮, জয়পুরহাটে ৮০৫, সিরাজগঞ্জে ১ হাজার ৫৬৯ জন এবং পাবনায় ৮৭১ জন শনাক্ত হয়েছেন।

শুক্রবার শনাক্ত ৩১৪ জনের মধ্যে ৮৬ জনের বাড়ি বগুড়ায়। এছাড়া এ দিন রাজশাহী জেলার ৪০ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুইজন, নওগাঁর ৩০ জন, নাটোরের ৮৪ জন, জয়পুরহাটের ২৩ জন, সিরাজগঞ্জের ৩০ জন এবং পাবনা জেলার ১৯ জনের দেহে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

শুক্রবার বিভাগের বগুড়া জেলায় করোনায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। গোটা বিভাগে এখন মৃতের সংখ্যা ১৯০ জন। এর মধ্যে বগুড়ায় সর্বোচ্চ ১১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া রাজশাহীতে ২৮ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জে আটজন, নওগাঁয় ১৪ জন, নাটোরে একজন, জয়পুরহাটে চারজন, সিরাজগঞ্জে ১১ জন এবং পাবনায় ৯ জন মারা গেছেন।

শুক্রবার বিভাগের ১২৯ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়েছেন। এর মধ্যে ৪৫ জনের বাড়ি রাজশাহী। এর বাইরে বগুড়ার ৪৩ জন, নওগাঁর একজন, সিরাজগঞ্জের ৩০ জন এবং পাবনার ১০ জন করোনামুক্ত হয়েছেন।

বিভাগে এ পর্যন্ত করোনা জয় করেছেন ৮ হাজার ৪০১ জন। এর মধ্যে রাজশাহীর ১ হাজার ৭৩৯ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২৩৮ জন, নওগাঁর ৮৩৯ জন, নাটোরের ২৫৭ জন, জয়পুরহাটের ২০৯ জন, বগুড়ার ৩ হাজার ৮৭৬ জন, সিরাজগঞ্জের ৬০১ জন এবং পাবনার ৬৪২ জন করোনামুক্ত হয়েছেন।

সানশাইন/০৮ আগস্ট/এমওআর

আগস্ট ০৮
১৪:৩৮ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আঁকাআঁকি থেকেই তন্বীর ‘রংরাজত্ব’

আসাদুজ্জামান নূর : ছোটবেলা থেকেই আঁকাআঁকির প্রতি নেশা ছিল জুবাইদা খাতুন তন্বীর। ক্লাসের ফাঁকে, মন খারাপ থাকলে বা বোরিং লাগলে ছবি আঁকতেন তিনি। কারও ঘরের ওয়ালমেট, পরনের বাহারি পোশাক ইত্যাদি দেখেই এঁকে ফেলতেন হুবহু। এই আঁকাআঁকির প্রতিভাকে কাজে লাগিয়েই হয়েছেন ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা। তুলির খোঁচায় পরিধেয় পোশাকে বাহারি নকশা, ছবি, ফুল

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

জোরালো হচ্ছে সরকারি চাকরিতে ‘বয়সসীমা’ বাড়ানোর দাবি

সানশাইন ডেস্ক : সর্বশেষ ১৯৯১ সালে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানো হয়। এরপর অবসরের বয়স বাড়ানো হলেও প্রবেশের বয়স আর বাড়েনি। বেকারত্ব বেড়ে যাওয়া, সেশনজট, নিয়োগের ক্ষেত্রে দীর্ঘসূত্রতা, অন্যান্য দেশের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়স বাড়ানোর দাবিতে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থী ও চাকরিপ্রার্থীরা। তবে এ বিষয়ে উদ্যোগ নেয়নি

বিস্তারিত