Daily Sunshine

রাজশাহীতে করোনায় মারা গেলেন আরডিএর মহাপরিচালক

Share

সানশাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমির (আরডিএ) মহাপরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) আমিনুল ইসলাম মারা গেছেন।

শনিবার সকাল ৯টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়। তিনি হাসপাতালের নিবিড় পর্যবেক্ষন কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন। রামেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. সাইফুল ফেরদৌস তাঁর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত ২২ জন বগুড়ার টিএমএসএস-এ নমুনা দেন তিনি। পরদিন ২৩ জুন নমুনা পরীক্ষায় তাঁর করোনা পজিটিভ আসে। সেসময় তিনি আরডিএ সেন্টারে নিজের বাংলোতে আইসোলেশনে চলে যান। পরে তাঁর শারিরীক অবস্থার অবনতি হলে গত ২৯ জুন রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার স্ত্রী ও দুই ছেলে রাজশাহীতে বসবাস করেন।

আমিনুল ইসলাম বিসিএস অষ্টম ব্যাচের প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তা হিসেবে ১৯৮৯ সালের ২০ ডিসেম্বর যোগদান করেন। সুদীর্ঘ কর্মজীবনে তিনি রাজশাহী অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনারের স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক, খাদ্য মন্তণালয়ের উপসচিব, সিরাজগঞ্জের জেলা প্রশাসক ও নাটোর সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

২০১৯ সালের ৬ ফেব্রুয়ারি আমিনুল ইসলাম বগুড়া পল্লী উন্নয়ন একাডেমিতে (আরডিএ) মহাপরিচালক হিসেবে যোগদান করেন। চলতি বছরের জুনে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের ‘নিয়ন্ত্রণাধীন দপ্তর/সংস্থা’ কাটাগরিতে ‘শুদ্ধাচার পুরস্কার’ অর্জন করেন তিনি।

আমিনুল ইসলাম সামাজিক আন্দোলন স্কাউটিং কার্যক্রমের সাথে নিবিড়ভাবে যুক্ত ছিলেন। স্কাউটস এর একজন লিডার ট্রেনার ছিলেন তিনি। বিগত পাঁচ বছর যাবত বাংলাদেশ স্কাউট রাজশাহী অঞ্চলের আঞ্চলিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি স্কাউটসের ন্যাশনাল সার্টিফিকেট এ্যাওয়ার্ড, মেডেল অব মেরিট, বার টু দ্যা মেডেল, প্রধান জাতীয় কমিশনার এ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছেন এবং রৌপ্য ইলিশ অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হয়েছেন।

সানশাইন/১১জুন/এমইউ

জুলাই ১১
১৭:৪২ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

সরকারি চাকরিতে আরও বেড়েছে ফাঁকা পদ

সরকারি চাকরিতে আরও বেড়েছে ফাঁকা পদ

সানশাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে সরকারি চাকরির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ না হওয়ায় বেড়েছে চাকরিপ্রার্থীর সংখ্যা, সঙ্গে ফাঁকা পদের সংখ্যাও বাড়ছে। সরকারি চাকরিতে এখন তিন লাখ ৮৭ হাজার ৩৩৮টি পদ ফাঁকা পড়ে আছে, যা মোট পদের ২১ দশমিক ২৭ শতাংশ। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলছেন, অগাস্ট মাসে কোভিড-১৯ সংক্রমণ কমে আসবে

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

সরকারি চাকরিতে আরও বেড়েছে ফাঁকা পদ

সরকারি চাকরিতে আরও বেড়েছে ফাঁকা পদ

সানশাইন ডেস্ক : করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যে সরকারি চাকরির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ না হওয়ায় বেড়েছে চাকরিপ্রার্থীর সংখ্যা, সঙ্গে ফাঁকা পদের সংখ্যাও বাড়ছে। সরকারি চাকরিতে এখন তিন লাখ ৮৭ হাজার ৩৩৮টি পদ ফাঁকা পড়ে আছে, যা মোট পদের ২১ দশমিক ২৭ শতাংশ। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলছেন, অগাস্ট মাসে কোভিড-১৯ সংক্রমণ কমে আসবে

বিস্তারিত