Daily Sunshine

ভবানীগঞ্জ পৌর সড়ক প্রশস্থ করার দাবী এলাকাবাসীর

Share

স্টাফ রিপোর্টার, বাগমারা: উপজেলা হেডকোয়ার্টার ভবানীগঞ্জ পৌরবাজারের রাস্তা প্রশস্থ করার দাবী জানিয়েছেন ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দসহ এলাকাবাসী। পৌরসভা প্রতিষ্ঠার দুইদশক পেরিয়ে গেলেও ভবানীগঞ্জ বাজারের রাস্তা বিন্দুমাত্র প্রশস্থ না হওয়ায় প্রতিনিয়ত সৃষ্টি হয় তীব্র যানজটের।

সেই সাথে উপযুক্ত ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও ফুটপাথ না থাকায় পথচারীদের পেহাতে হয় মারাত্বক বিড়ম্বনা। এখানে প্রতিনিয়ত ঘটে দূর্ঘটনা এবং যানবাহন চলাচলে কাঁদাপানি ছিটকে পথচারীদের জামাকাপড় নষ্ট হয় । এসব অবর্ননীয় দূর্ভোগ ও কষ্ট পেরিয়ে চলাচলকারী পথচারীরা তাদের কষ্টের কথা কোথাও জানাতে পারে না। পৌর মেয়রের একঘেয়োমীর কারণে দূভোর্গের শিকার লোকজন তাদের অভিযোগের বিষয়ে পৌরসভায় যেতেও লজ্জাবোধ করে।

পৌরসভা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, নানান ঝোড়ঝামেলা পেরিয়ে সম্প্রতি ভবানীগঞ্জ বাজারের এক কিলোমিটার রাস্তার সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে গত সপ্তাহ খানেক আগে। স্থানীয়রা জানান, সারা বছর পৌরসভার লোকজন নাকে তেল দিয়ে ঘুমিয়ে ভরা বর্ষা মৌসুমে এসে তারা শুরু করেছে রাস্তা সংস্কারের কাজ। এই রাস্তার কাজের মান নিয়েও অনেকে প্রশ্ন তুলেছেন।

এর আগে এই পৌর সভায় চার কোটি টাকা ব্যয়ে ড্রেন নির্মাণ করা হলেও এখন সেগুলো আর কোন কাজে আসছে না। বছর না পেরোতেই ড্রেনগুলো এখন অনেজো হয়ে পড়ে রয়েছে। এগুলো এখন মরণ ফাঁদে পরিনত হয়েছে। ভবানীগঞ্জ হিন্দুপাড়া ও মাষ্টারপাড়ার ড্রেনগুলো দিয়ে আর পানি নামছে না।

বিএনপি’র মেয়র আব্দুর রাজ্জাকের আমলে ড্রেনগুলো নির্মাণের পর আর কোন সংস্কার না হওয়ায় সেগুলো আর সচল নেই। তার আগে ভবানীগঞ্জ কলেজ রোড় থেকে গোডাউন মোড় পর্যন্ত রাস্তাটি আঠার লক্ষ টাকা ব্যয়ে সংস্থার করা হলেও মাস না পেরোতেই রাস্তার পিচ ওঠে একাকার হয়ে যায়। এখন ওই রাস্তা খানাখন্দকে ভরা। পৌরসভার কাউন্সিলর হাচের আলী রস্তাটির ঠিকাদারী নেওয়ায় স্থানীয়রা সেটাকে এখনও হাচেন রোড় বলেও চেনে।

বর্তমানে ওই রাস্তাটিতে কোন রকমে জোড়াতালি দিয়ে চলাচলের উপযোগি করা হয়েছে। একইভাবে ভবানীগঞ্জ বাজারের রাস্তা সংস্কার কাজের গুনগত মান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন স্থানীয়রা। তাদের অভিযোগ ভবানীগঞ্জ বাজারের ড্রেন, রাস্তা কোনটারই কাজের মান ঠিকভাবে করা হয় না। এখানে শুধু কাজের নামে টাকারই অপচয় আর লুটপাট করা হয়। আর এর পরিনতিতে দূর্ভোগ পেহাই পৌরবাসী। সম্প্রতি ভবানীগঞ্জ কলেজ মোড় থেকে জিরো পয়েন্ট হয়ে তরকারি হাটি ও ভাঙ্গা ব্রীজ পর্যন্ত যে এক কিলোমিটার রাস্তার সংস্কার কাজ শুরু হয়েছে সেখানেই নয়ছয়ভাবে কাজ করা হচ্ছে।

এককিলোমিটার দৈর্ঘের ও চৌদ্দ ফিট প্রস্থের এই রাস্তাটির জন্য সরকারি বরাদ্দ ৪৬ লক্ষ টাকা । স্থানীয় কয়েকজন ঠিকাদারের মতে এই পরিমান বাজেট দিয়ে রাস্তাটি সংস্কার করা হলে এখানে যথেষ্ট মানসম্পন্ন রাস্তা নির্মাণ করা সম্ভব। বাজারের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দরা জানান, এখানে পৌরসভা প্রতিষ্ঠার দুই দশক পার হতে চলেছে। আগের তুলনায় এখন যানবাহন ও লোকসংখ্যা দশগুণেরও বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। সেই তুলনায় রাস্তাঘাট একেবারে প্রশস্থ হয়নি। যে কারণে এখানে যানযট একটি নিত্যদিনের সমস্যা।

ব্যবসায়ী নেতারা বলেন, আমরা পৌরসভার কাছে দাবী জানিয়েছিলাম। ভবানীগঞ্জ কলেজ মোড় থেকে গোডাউন মোড় পর্যন্ত রাস্তার উভয় পাশের মালিকানা জমি অধিগ্রহন করে রাস্তা প্রশস্থ করা জন্য। যদিও এটা লম্বা প্রসেস তারপর এটি একবার করলে সরকারের আর অর্থ অপচরের সুযোগ থাকতো না। ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের এই প্রস্তাবটি নিয়ে পৌরকর্তৃপক্ষ আর বেশি দূর এগোতে পারেনি।

উপজেলা পরিষদ ও পৌরসভার মার্কেট ভেঙ্গে দিয়ে রাস্তা প্রশস্থ করার সিদ্ধান্ত হলেও অবশিষ্ট রাস্তা প্রশস্থের জমি অধিগ্রহনের বিষয়টি পৌরসভার অনীহার কারণে আটকে থাকে। স্থানীয়দের মতে এখন যে নামমাত্র ভাবে রাস্তা প্রশস্থ করা হচ্ছে তাতে আরো যানজট বৃদ্ধি পাবে। এখানে উভয় পাশে ফুটপাথ না রেখে দোকানের বারান্দাগুলো ভেঙ্গে রাস্তা বৃদ্ধি করায় সেখানে যানবাহন ও পধচারীর চলাচলে আরো সমস্যার সৃষ্টি হবে বলে তারা জানান।

তাদের অভিযোগ, উভয় পাশে রাস্তা প্রশস্থ করার জন্য দোকানের বারান্দা ভাংতে গিয়েও চরম বৈষম্য করা হয়েছে। বেছে বেছে দূর্বল দোকান মালিকের বারান্দা ভাঙ্গা হয়েছে। অনেকের বারান্দা না ভাঙ্গায় সেখানে রাস্তা প্রশস্থ করা সম্ভব হবে না বলেও জানান স্থানীয়রা। ভবনাীগঞ্জ বাজার বনিক সমিতির সভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলম হেলাল বলেন, আমরা বাজারের রাস্তার উভয়পাশের ব্যক্তিমালিকানা জমি অধিগ্রহন করে রাস্তা প্রশস্থ করার প্রস্তাব দিয়েছিলাম । কারণ আজ হোক কাল হোক এই রাস্তা প্রশস্থ করতেই হবে। এর কোন বিকল্প নেই। তার মতে, রাজশাহী শহরে এমনকি নিকটতম তাহেরপুর পৌরসভাতেও একইভাবে কাজ হয়েছে।

বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি আবু তালেব অক্ষেপ করে বলেন, বাগমারার একটা ইউনিয়ন পর্যায়ের এলাকার রাস্তাঘাট এর চেয়ে অনেক ভাল। এটা যে উপজেলা হেডকোয়ার্টর পৌরসদর তার রাস্তাঘাটের কী করুন অবস্থা। এসব নিয়ে ভাল কোন পরামর্শ দিতে গেলেও আমাদের কথা কেউ আমলে নেয় না। এছাড়াও পৌরসভার ব্র্যাক মোড় সহ বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে অবৈধভাবে চাঁদা আদায় ও যানবাহন চালকদের হয়রানী বিষয়েও তিনি অভিযোগ তুলেন।

তবে কিছুটা ভিন্নমত পোষন করে ভবানীগঞ্জ পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাচেন আলী বলেন, পৌরসভার রাস্তা সহ চলমান যে উন্নয়ন কাজ হচ্ছে তা খুবই সন্তোষজনক।

পৌরসভার সহকারি প্রকৌশলী লিটন মিয়া বলেন, রাস্তাটি প্রথমে চৌদ্দ ফিট প্রশস্থ করার হিসাব ধরা হয়েছিল পরে তা বাড়িয়ে বাইশ ফিট করা হয়েছে। বর্তমান যানবাহন ও লোকসংখ্যা বৃদ্ধির তুলনায় এই পরিমান রাস্তা প্রশস্থ যথেষ্ট নয় বলে স্বীকার করে পৌর প্রকৌশলী জানান, আমরা পর্যায়ক্রমে আগামী অর্থ বছরের মধ্যেই রাস্তার অবশিষ্ট প্রশস্থকরনের কাজ শুরু করব। সেই সাথে ড্রেনেজ ব্যবস্থারও উন্নয়ন ঘটানো হবে। পৌর মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডল প্রায় একই অভিমত ব্যক্ত করে বলেন, দাপ্তরিক কিছু কাজ ও বরাদ্দ অনুমোদন পেতে বিলম্বের কারণে বর্ষা মৌসুমে কাজ শুরু করতে হল। তারপরও আমরা কাজের গুনগত মান ঠিক রাখার ব্যাপারে সর্বদা মনিটরিং করছি। কোথাও কোন সমস্যা হলে সাথে সাথে তার সমাধান করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

সানশাইন/০৩ জুলাই/ রোজি

জুলাই ০৩
২০:১৫ ২০২০

আরও খবর

পত্রিকায় যেমন

বিশেষ সংবাদ

দুই নেতার শীতল যুদ্ধে বিএনপিতে বিভক্তি!

দুই নেতার শীতল যুদ্ধে বিএনপিতে বিভক্তি!

সানশাইন ডেস্ক : দলে প্রভাব বিস্তার, সিদ্ধান্ত গ্রহণে দ্বিমুখিতা, প্রাত্যহিক কার্যক্রমে সমন্বয়হীনতাসহ সাংগঠনিক দ্বন্দ্বে বিএনপিতে বিভক্তি সৃষ্টি হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। নেতারা পরস্পরের সঙ্গে জড়িয়ে পড়ছেন শীতল যুদ্ধে। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নির্দেশ পাশ কাটিয়ে বিশেষ ক্ষমতাবলে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ নিজের মতো করে দলের

বিস্তারিত




এক নজরে

আমাদের সাথেই থাকুন

চাকরি

বিশেষ বিসিএসে আরও দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগ

বিশেষ বিসিএসে আরও দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগ

সানশাইন ডেস্ক : সংকট মোকাবিলায় নতুন করে বিশেষ বিসিএসের মাধ্যমে আরও দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দিচ্ছে সরকার। এজন্য বিসিএস নিয়োগবিধি সংশোধন করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে পাঠাচ্ছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) আ ই ম নেছার উদ্দিন সোমবার (২৭ জুলাই) বাংলানিউজকে এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, নতুন করে বিশেষ

বিস্তারিত