Daily Sunshine

উত্তরের দুই জেলায় ‘স্পিরিট’ পানে তিন দিনে ১৬ জনের মৃত্যু

Share

সানশাইন ডেস্ক : ঈদের ছুটির মধ্যে নেশা করতে ‘স্পিরিট’ পান করে উত্তর জনপদের পাশাপাশি দুই জেলা রংপুর ও দিনাজপুরে তিন দিনে মোট ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে গত তিন দিনে মোট আটজনের মৃত্যু হয়েছে; দিনাজপুরে কেবল বুধবারই আট জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছে পুলিশ।

রংপুর কোতয়ালি থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম বলেন, “প্রাথমিকভাবে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, নেশা করার জন্য স্পিরিট পান করে তাদের মৃত্যু হয়েছে। এর উৎস এবং সরবরাহকারীদের খুঁজে বের করতে পুলিশ অভিযান শুরু করেছে।”

রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের জরুরি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী, এ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার বদরগঞ্জ উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়ানের নুর ইসলাম (৩০) এবং রংপুর সদর উপজেলার চন্দনপাট ইউনিয়নের সরোয়ার হোসেন (৩১) ও মোস্তফা কামালের (৩০) মৃত্যু হয়।

তাদের মধ্যে মোস্তফা ও সরোয়ারকে ইতোমধ্যে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে বলে সদর উপজেলার চন্দনপাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান জানান। তিনি বলেন, এরা সবাই স্পিরিট পানে অসুস্থ হয়ে মেডিকেলে ভর্তি হয়েছিলেন।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ঈদ ঘিরে একটি চক্র দল শ্যামপুর বাজার এলাকায় মদ ও স্পিরিট পানের আসর বসায়। সেই স্পিরিট পান করে লোকজন অসুস্থ হয়ে পড়লে পরিবারের সদস্যরা তাদের রংপুর মেডিকেলে ভর্তি করেন।

এর আগে ঈদের দিন সোমবার রাতে রায়তি সাদুল্লাপুরের দুলা মিয়া (৫২), হরিরাম সাহাপুরের লাল মিয়া (৩০), মঙ্গলবার সকালে শানেরহাট খোলাহাটি গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক (৪৫), বিকালে পাহাড়পুরের জাইদুল হক (৩৫) ও পাশের মিঠাপুকুর উপজেলার বাজিতপুর গ্রামের চন্দন কুমার (৩০) একই কারণে মারা যান বলে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) শরিফুল ইসলাম জানিয়েছিলেন।

সানশাইন/২৮ মে/এমওআর

মে ২৮
১২:৫০ ২০২০

আরও খবর