সর্বশেষ সংবাদ :

নওগাঁয় ৬৪ কেজি গাঁজাসহ তিন মাদক কারবারি গ্রেপ্তার

নওগাঁ প্রতিনিধি: র‌্যাব-৫ এর জয়পুরহাট এর চৌকস আভিযানিক দল ৬৪ কেজি গাঁজাসহ ৩ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার এবং তাদের ব্যবহৃত ৪টি মোবাইল ৬টি সীমকার্ড, নগদ ৫ হাজার টাকা ও উপরের অংশ কাটা মাইক্রো উদ্ধার করেছে। চালকসহ অপর ২ জন পালিয়ে গেছে। গ্রেফতারকৃতরা মাদক ব্যবসায়ীরা হলো কুমিল্লা জেলার কোতয়ালী থানার বসন্তপুর গ্রামের আবু তাহেরের পুত্র সাদ্দাম হোসেন (২৮), কুটিশহর গ্রামের সিদ্দিকুর রহমানের পুত্র আলমগীর হোসেন (৩৮) ও বড়জ্বলা গ্রামের জামাল হোসেনের পুত্র শাওন (২১)।
র‌্যাব-৫ এর প্রেস রিলিজ সুত্রে জানা গেছে, শুক্রবার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে, নওগাঁ শহরের ঠাংগা মারা এলাকা দিয়ে একটি মাইক্রোবাসের উপরের অংশ কাটা করে অভিনব কায়দায় গাঁজা যাচ্ছিল। র‌্যাবের বিশেষ একটি টহল দল ওই গাড়িটি যাবার সময় গাড়িটি থামিয়ে তল্লাশি চালিয়ে অভিনব পদ্ধতিতে উপরের অংশ কাটা মাইক্রোর পাটাতনের প্লেনশিটের নিচে লুকানো অবস্থায় ৬৪ কেজি গাঁজা, ৪টি মোবাইল, ৬টি সীমকার্ড ও মাদক কেনা-বেচার কাজে ব্যবহৃত ৫,০৬০ টাকা উদ্ধার করা সহ উল্লেখিত আসামীদের গ্রেফতার করা হয়।
এসময় চালক শহিদুল ও অজ্ঞাতনামা আরো ২ জন কৌশলে পালিয়ে যায়। পলাতক শহীদুল (২৫) কুমিল্লা জেলার কোতয়ালী থানার মতিননগর গ্রামের আমিরুল ইসলামের পুত্র। গ্রেফতারকৃত আসামী সাদ্দাম ও পলাতক আসামী শহিদুল (চালক) চিহ্নিত পেশাদার মাদক ব্যবসায়ী। তারা দীর্ঘদিন যাবত সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে মাদক সরবরাহ করে আসছে বলে র‌্যাবের নিকট স্বীকার করেছে।
অজ্ঞাতনামা বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সাদ্দাম জানায়, অজ্ঞাতনামা পলাতক আরো ২ জন এই অঞ্চলের বাসিন্দা আটককৃত সাদ্দাম প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আরো জানায়, তারা দীর্ঘদিন যাবৎ কুমিল্লার সীমান্তবর্তী অঞ্চল হতে গাঁজার চালান সংগ্রহ করে আইন-শৃংখলা বাহিনীর চোখকে ফাঁকি দিয়ে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে উপরের অংশ কাটা মাইক্রোতে বহন করে গাঁজা সরবরাহ করে আসছিল।
গ্রেফতারকৃত আসামীদের যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে নওগাঁ সদর থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।


প্রকাশিত: জুন ২২, ২০২৪ | সময়: ৬:২৩ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ