মান্দায় পাওনা টাকা চাওয়ায় দোকানে হামলার অভিযোগ

মান্দা প্রতিনিধি: নওগাঁর মান্দায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার কালিতলা বাজারে হামলার এ ঘটনা ঘটে।
ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীর নাম জিয়া হায়দার সুমন। কালিতলা বাজারে হামীম ট্রেডার্স নামের তার একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। ঘটনায় আব্দুল বারিক, মতিউর রহমানের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা ২০ থেকে ২৫ জনের বিরুদ্ধে বুধবার মান্দা থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।
ব্যবসায়ী জিয়া হায়দার সুমন বলেন, উপজেলার হাটোইর গ্রামের বাসিন্দা মতিউর রহমান তার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে বাঁকিতে ৯৫ হাজার ৬২৫ টাকার রড, সিমেন্টসহ বিভিন্ন মালামাল ক্রয় করেন। এ টাকার জিম্মদার ছিলেন একই এলাকার আব্দুল বারিক সরদার। বকেয়া টাকার মধ্যে কয়েক দফায় তারা ৬০ হাজার টাকা পরিশোধও করেন।
ব্যবসায়ী জিয়া হায়দার অভিযোগ করে বলেন, গত ১ ও ২ জুন তার দোকানে হালখাতা হয়েছে। কিন্তু মতিউর রহমান কিংবা বারিক সরদার কেউই বকেয়া ৩৫ হাজার ৬২৫ টাকা পরিশোধ করেননি। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৮টার দিকে বারিক সরদারকে তার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে ডেকে নিয়ে টাকা চাওয়া হলে বিভিন্ন অজুহাতে তিনি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। এনিয়ে উভয়ের মধ্যে বাগ্বিতণ্ডা হয়।
এর পর রাত সাড়ে ৯টার দিকে বেশকিছু মোটরসাইকেলে ২০ থেকে ২৫জন লোক বারিক সরদারের নেতৃত্বে তার ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা করে। হামলাকারীরা এসময় দোকানঘরের সার্টার ও বাসার দরজা ভাঙার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। পরে তাকে হত্যাসহ বিভিন্ন ধরণের হুমকি দিয়ে চলে যায়।
অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আব্দুল বারিক সরদার বলেন, মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে সুমনের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে গিয়ে সময় চাইলে তিনি অশালীন ভাষা গালাগাল করেন। এক পর্যায়ে আমার মোটরসাইকেল আটকিয়ে দেওয়া হয়। সংবাদ পেয়ে আমার লোকজন সেখানে থেকে আমাকে নিয়ে যান। ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে ও বাসায় হামলার অভিযোগ ভিত্তিহীন।
এ প্রসঙ্গে মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক কাজী বলেন, সংবাদ পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল। আজ মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


প্রকাশিত: জুন ৬, ২০২৪ | সময়: ৫:৩৯ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ