সর্বশেষ সংবাদ :

আইনী জটিলতা নিরসনে গ্রাম আদালতের কোন বিকল্প নেই: জেলা প্রশাসক

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী জেলা প্রশাসনের আয়োজনে গ্রাম আদালত কার্যক্রমে অগ্রগতি পর্যালোচনা ও করণীয় শীর্ষক অর্ধ-বার্ষিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ। এতে সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী জেলার স্থানীয় সরকার শাখার উপপরিচালক মো. আশরাফুল ইসলাম।
সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক শামীম আহমেদ বলেন, গ্রামীণ জনগণ বিশেষ করে নারী, দরিদ্র ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর দোড় গোড়ায় আইন সেবা নিশ্চিত করণের গ্রাম আদালতের কোন বিকল্প নেই। গ্রামে অনেক ছোট খাটো ঘটনা ঘটলেও এখনও কিছু মানুষ তার প্রতিকার চাইতে থানা বা জেলা আদালতে আসেন যাতে অনেক সময়ও অর্থ ব্যয় হয়। এর ফলে তারা আরো সমস্যায় জড়িয়ে পড়েন। এ জাতীয় ছোট-খাটো সমস্যা স্বল্পসময়ে, অল্প খরচে গ্রাম আদালতেই নিষ্পত্তি করা যায়। বর্তমান সরকার গ্রাম আদালত কার্যকরী করতে অঙ্গীকারবদ্ধ ও সক্রিয়। এক্ষেত্রে সচিবদের সক্রিয় ভাবে কাজ করতে হবে।
তিনি আরো জানান, উচ্চতর আদালতের মামলার জট কমাতে গ্রাম আদালতের কোন বিকল্প নাই। এক্ষেত্রে অবশ্যই ইউপি সচিবদের আরো কার্যকরী ভূমিকা নিতে হবে। পাশাপাশি এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যানকে কার্যকরি সহায়তা দিতে হবে। গ্রাম আদালতের এখতিয়ার ভুক্ত মামলা ইউপিতে আসলে তা গ্রাম আদালতের মাধ্যমে সমাধান করার আহ্বান জানান।
সভায় গ্রাম আদালতের অগ্রগতি উপস্থাপন করেন, গ্ৰাম আদালত সক্রিয়করণ তৃতীয় পর্যায় প্রকল্পের জেলা ব্যবস্থাপক মো. লুৎফর রহমান। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু সালেহ্ মোহাম্মদ হাসনাত, পুঠিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার একেএম নূর হোসেন নির্ঝর, দূর্গাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্বীকৃতি প্রামানিক, গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ তৃতীয় পর্যায় প্রকল্পের সমন্বয়কারী মারুফ আহমেদসহ জেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আগত ইউপি সচিব ও হিসাব সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর বৃন্দ।


প্রকাশিত: মে ২০, ২০২৪ | সময়: ৪:৫৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ