২৯৫ বোতল ফেন্সিডিলসহ রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য আটক

ঈশ্বরদী প্রতিনিধি: পাবনার ঈশ্বরদীতে ২৯৫ বোতল ফেন্সিডিলসহ রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য (সিপাহী) মাসুম হাওলাদার (৩০) ও অপর সিপাহী হাফিজুল ইসলামের স্ত্রী ঝর্ণা খাতুন (২৮) কে আটক করেছে পুলিশ। রবিবার দিনব্যাপী ঈশ্বরদী শহরের ফকিরের বটতলা, পিয়ারাখালী ও স্কুলপাড়া এলাকার ভাড়া বাসায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এ সময় ফেনসিডিল বিক্রি করার ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়।
সন্ধ্যায় ঈশ্বরদী থানা মিলনায়তন কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার গোস্বামী।
আটককৃত আসামী মাসুম হাওলাদার পিরোজপুর জেলার সদর থানার উদয়কাঠি গজলিয়া এলাকার মতিউর রহমানের ছেলে ও ঝর্ণা খাতুন বরিশাল জেলার উজিরপুর থানার ডাকুয়ার বড়কোঠা গ্রামের হাফিজুল ইসলামের স্ত্রী। মাসুম হাওলাদার ও হাফিজুল ইসলাম দুজনই রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীতে কর্মরত সদস্য (সিপাহী)।
ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার গোস্বামী জানান, আটককৃতরা রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর কর্মী হওয়ার সুযোগে সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে ফেন্সিডিল ট্রেন যোগে ঈশ্বরদীতে নিয়ে আসতো।
এরপর বিভিন্ন ব্যবসায়ীর কাছে সেগুলো বিক্রয় করতো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে রেলের নিরাপত্তা কর্মী মাসুম হাওলাদারের ভাড়া বাসা থেকে ২৩৪ বোতল এবং হাফিজুল ইসলামের ভাড়া বাসা থেকে ৬১ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। এ সময় ফেনসিডিল বিক্রয়ের ১ লক্ষ ৩০ হাজার পাঁচ’শ টাকা জব্দ করা হয় করা।
ঈশ্বরদী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রফিকুল ইসলাম জানান, আটককৃত ২ জন আসামী সহ পলাতক হাফিজুল ইসলামের বিরুদ্ধে ঈশ্বরদী থানায় মাদক মামলা দায়ের করা হয়েছে। তাদের আদালতে প্রেরণ করা হবে।
রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর পাকশী বিভাগীয় সহকারী কমান্ডেন্ট শহীদুজ্জামান জানান, ফেনসিডিল সহ আটক রেলওয়ের ২ নিরাপত্তা কর্মের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


প্রকাশিত: মে ২০, ২০২৪ | সময়: ৪:৫৪ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ