জোড়া সেঞ্চুরিতে বাংলাদেশকে ভুগিয়ে মাস সেরা কামিন্দু

স্পোর্টস ডেস্ক: বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে আলো ছড়িয়ে মার্চ মাসে আইসিসির সেরা খেলোয়াড়ের খেতাব জিতেছেন শ্রীলঙ্কার কামিন্দু মেন্ডিস। তিনি পেছনে ফেলেছেন আয়ারল্যান্ডের মার্ক অ্যাডায়ার ও নিউজিল্যান্ডের ম্যাট হেনরিকে।
শ্রীলঙ্কার তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে এই পুরস্কার জিতেছেন মেন্ডিস। তার আগে প্লেয়ার অব দ্য মান্থ হয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রবাথ জয়াসুরিয়া ও ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। ২০২২ সালের পর লঙ্কান দলে ২৫ বছর বয়সীর প্রত্যাবর্তনটা হয়ে থাকলো স্মরণীয়। মাসটা শুরু করেছিলেন বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে ৬৮ রান করে। দ্বিতীয় ম্যাচে ২৭ বলে করেছেন ৩৭। তবে সেরাটা বের হয়ে আসে টেস্ট ফরম্যাটে। সিলেটে প্রথম টেস্টের দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি হাঁকান তিনি। তাও দলের কঠিন সময়ে। প্রথম ইনিংসে ৫৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে গিয়েছিল লঙ্কান দল। সেখান থেকে দলটা দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় তার সঙ্গে ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার ২০২ রানের জুটিতে! তাদের ব্যাটেই স্কোরটা গিয়ে দাঁড়ায় ২৮০ রানে! দুই ব্যাটারই এই চলার পথে সেঞ্চুরির দেখা পেয়েছেন। মেন্ডিস করেছেন ১০২ রান।
১৮৮ রানে স্বাগতিকদের গুটিয়ে দেওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসেও অব্যাহত থাকে মেন্ডিসের প্রতিরোধ। ১২৬ রানে ষষ্ঠ উইকেট পতনের পর মেন্ডিস ব্যাট করতে নামেন ৮ নম্বরে। তখন খেলেন ক্যারিয়ার সেরা ১৬৪ রানের ইনিংস। তাতে প্রথম ব্যাটার হিসেবে কোনও টেস্টে সাত কিংবা তার নিচে নেমে দুই সেঞ্চুরির কীর্তি গড়েন তিনি। তার ইনিংসটিতে ছিল ১৬টি চার ও ৬টি ছয়ের মার। তার ব্যাটে ভর করেই পরে দ্বিতীয় ইনিংসে শ্রীলঙ্কা পায় ৪১৮ রানের সংগ্রহ। বাংলাদেশকে ১৮২ রানে গুটিয়ে ওই টেস্টটা ৩২৮ রানে জেতে শ্রীলঙ্কা।
আইসিসির এই অ্যাওয়ার্ডকে ভবিষ্যতের প্রেরণা হিসেবে দেখছেন কামিন্দু মেন্ডিস। প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, ‘আইসিসি প্লেয়ার অব দ্য মান্থ হতে পেরে ভীষণ আনন্দিত আমি। যাকে আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে অনুপ্রেরণা হিসেবে দেখছি আমি।’ তিনি আরও বলেছেন, ‘সাধারণত এমন স্বীকৃতি আমাদের খেলোয়াড় হিসেবে আরও পরিশ্রম করতে, দেশ-দল ও ভক্তদের জন্য আরও বেশি নিজেদের উজাড় করে দিতে অনুপ্রাণিত করে।’


প্রকাশিত: এপ্রিল ৯, ২০২৪ | সময়: ৬:০৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর