সর্বশেষ সংবাদ :

রাবির ভর্তিপরীক্ষা শুরু আজ জালিয়াতি রোধে কঠোর ব্যবস্থা

রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের (রাবি) ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আজ। মঙ্গলবার সকাল ৯টায় প্রথম শিফটে বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিট দিয়ে শুরু হওয়া এই ভর্তিপরীক্ষা শেষ হবে ৭ মার্চ বৃহস্পতিবার ব্যবসায় অনুষদভূক্ত বি ইউনিটের পরীক্ষা দিয়ে। মোট ৪ হাজার ৪৩৮টি আসনের বিপরীতে তিনটি ইউনিটে এই পরীক্ষায় মোট ১ লক্ষ ৮৫ হাজার ৬৮০টি ভর্তিচ্ছু লড়ছে।
বিশ^বিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতর সূত্রে জানা যায়, ‘এ’, ‘বি’ ও ‘সি’ এই তিনটি ইউনিটের মাধ্যমে সম্পন্ন হবে এই ভর্তিপরীক্ষা। ‘এ’ ইউনিটে কলা, আইন, সামাজিক বিজ্ঞান ও চারুকলা অনুষদভুক্ত ২৭টি বিভাগসহ শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট অন্তর্ভুক্ত। ‘বি’ ইউনিটে ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত ৬টি বিভাগ ও ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট রয়েছে। ‘সি’ ইউনিটে বিজ্ঞান, কৃষি, প্রকৌশল, জীববিজ্ঞান ও ভূ-বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ২৬টি বিভাগ অন্তর্ভুক্ত আছে।
চলতি শিক্ষাবর্ষে কোটাসহ মোট আসন সংখ্যা ৪ হাজার ৪৩৮টি। এই আসনের বিপরীতে মোট ১ লক্ষ ৮৫ হাজার ৬৮০টি আবেদন জমা হয়েছে। এদের মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে ৭৪ হাজার ৭৮৫টি, ‘বি’ ইউনিটে ৩৪ হাজার ৫৪১টি এবং ‘সি’ ইউনিটে ৭৬ হাজার ৩৫৪টি চূড়ান্ত আবেদন সম্পন্ন হয়েছে। একক আবেদনকারীর সংখ্যা ১ লক্ষ ৫৪ হাজার ৯৭৭। এর মধ্যে পুরুষ আবেদনকারীর সংখ্যা ৯০ হাজার ৪৫৬ এবং নারী আবেদনকারীর সংখ্যা ৬৪ হাজার ৫২১। তবে কোটা বাদে আবেদনকারীর সংখ্যা ‘এ’ ইউনিটে ৬৯ হাজার ৫২৭, ‘বি’ ইউনিটে ৩২ হাজার ৬১৪ এবং ‘সি’ ইউনিটে ৭০ হাজার ৯৭৬।
তিনটি ইউনিটে প্রতিদিন চারটি শিফটে এই ভর্তিপরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত প্রথম শিফটের পরীক্ষা, এরপর বেলা ১১টা থেকে ১২টায় দ্বিতীয় শিফট, ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত দ্বিতীয় শিফট এবং দুপুর সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে চারটায় চতুর্থ শিফটের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। প্রথমদিন মঙ্গলবার বেলা ৯টা থেকে শুরু হবে ‘সি’ ইউনিটের ভর্তিপরীক্ষা। দ্বিতীয়দিন বুধবার সকাল ৯টা থেকে শুরু হবে ‘এ’ ইউনিটের ভর্তিপরীক্ষা। বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় প্রথম শিফটে ‘সি’ ইউনিটে অবিজ্ঞান গ্রুপ। এরপর বেলা ১১টা থেকে ১২টা পর্যন্ত ‘বি’ ইউনিটে বাণিজ্য বিভাগ এবং ১টা থেকে ২টা পর্যন্ত অ-বাণিজ্য বিভাগের ভর্তিপরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।
জনসংযোগ দফতর জানায়, এক ঘণ্টাব্যাপী এই ভর্তি-পরীক্ষা এমসিকিউ পদ্ধতিতে গ্রহণ করা হবে। পরীক্ষা চলাকালে কোনো পরীক্ষার্থী পরীক্ষা কক্ষের বাইরে যেতে পারবে না। পরীক্ষার হলে মোবাইল ফোন ও ক্যালকুলেটরসহ মেমোরিযুক্ত অন্য কোনো ধরনের ইলেকট্রনিক ডিভাইস সঙ্গে রাখা যাবে না। পরীক্ষা শুরুর ১ ঘণ্টা আগে পরীক্ষা ভবনের গেট ও ৩০ মিনিট আগে পরীক্ষা কক্ষের প্রবেশগেট খুলে দেয়া হবে।
এর আগে এক সাংবাদিক সম্মেলনে রাবি উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার জানান, এই ভর্তিপরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে সকল প্রস্তুতি নিয়েছে বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসন। তিনি জানান, পরীক্ষাচলাকালীন ক্যাম্পাসে ১১টি অভিভাবক টেন্ট ও চেয়ারের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতে রাবি চিকিৎসাকেন্দ্রসহ কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের ৬টি অ্যাম্বুলেন্স ও ৩টি পৃথক মেডিকেল টিম কাজ করবে। বিএনসিসি, রোভার স্কাউট, রেঞ্জাররা ক্যাম্পাসে ১২টি হেল্পডেস্কের মাধ্যমে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সহযোগিতা প্রদান করবে। এসব হেল্পডেস্কে খাবার পানির ব্যবস্থা থাকবে।
আবাসনের বিষয়ে উপাচার্য বলেন, পরীক্ষার্থীদের আবাসিক হল ও জিমনেসিয়ামে সীমিত আকারে থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। নারী অভিভাবকদের অবস্থানের জন্য রাবির মহিলা জিমনেসিয়াম ও পশ্চিম ৯০ নম্বর বাসায় সীমিত ব্যবস্থা করা হয়েছে। পরীক্ষার্থীর প্রবেশপত্র ও নিজেদের জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি জমা দিয়ে অভিভাবক সীমিত আকারে ক্যাম্পাসে অবস্থান করতে পারবে।
বিভাগীয় শহরে কেন পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে না? সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের প্রেক্ষিতে উপাচার্য বলেন, আমাদের দীর্ঘদিন শিক্ষক নিয়োগ বন্ধ থাকায় জনবল কম। এই সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারলে সামনের বছর থেকেই বিকেন্দ্রীকরণের দিকে আগাবে রাবি প্রশাসন।
এছাড়া ভর্তিপরীক্ষা চলাকালীন নগরে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় বিশ^বিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও সংলগ্ন এলাকায় অতিরিক্তি ট্রাফিক ও পুলিশ মোতায়েন থাকবে বলে জানিয়েছে প্রক্টর দফতর। এছাড়া ভর্তি জালিয়াতি রোধ ও আইনশৃঙ্খলা বজায় রাখতে পুলিশ, গোয়েন্দা বিভাগ, র‌্যাব ও ভ্রাম্যমাণ আদালত কাজ করবে। বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসন জানায়, যেকোনো জালিয়াতি ও ভর্তিচ্ছুদের হয়রানী বন্ধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন।


প্রকাশিত: মার্চ ৫, ২০২৪ | সময়: ৫:১৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ