সর্বশেষ সংবাদ :

জয়পুরহাট হাসপাতালে চিকিৎসকের ওপর হামলা, বাবা ও ছেলে আটক

জয়পুরহাট প্রতিনিধি: জয়পুরহাটে হাসপাতালে চিকিৎসকের ওপর অতর্কিত হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনায় হামলাকারী চিকিৎসা সেবা নিতে আসা বাবা ও ছেলেকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে জয়পুরহাট ২৫০শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে এ ঘটনাটি ঘটে।
জানা গেছে, জয়পুরহাটের ২৫০শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের বর্হি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা.জাকা কাইফ রোগী দেখার সময় জসিম উদ্দিন আকন্দ (৪৫) নামে এক রোগী ও তার ছেলে জুয়েল আকন্দ (২৪) রোগীদের সিরিয়াল ভেঙে জোর করে ওই চিকিৎসকের নির্ধারিত কক্ষে প্রবেশ করে।তারা তাকে আগে দেখার (পরীক্ষা করার) জন্য জোরাজুরি করতে থাকে। কিন্তু ওই চিকিৎসক সিরিয়াল ভেঙে রোগী দেখায় (চিকিৎসা সেবা দেয়ায়) রাজি না হওয়ায় তারা ক্ষিপ্ত হয়ে ওই চিকিৎসক ও তার সহকারীর ওপর চড়াও হয় ও ওই কক্ষে ভাঙচুর শুরু করে। এ অবস্থায় ডা.জাকা কাইফ দ্রুত হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়কের নিকট গিয়ে ঘটনাটি তাকে জানান।
ওই দিকে ডা. জাকা কাইফ তার কক্ষ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর ওই রোগী ও তার ছেলে কক্ষে আসবাবপত্র ভাঙচুর ও ওই চিকিৎসকের ফেলে যাওয়া মোবাইল ফোন সেট ভাঙচুর করতে থাকলে হাসপাতালের স্টাফ ও অন্যান্য রোগীরা তাদেরকে আটক করে। পরে তাদের জয়পুরহাট সদর থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়। আটককৃত (রোগী) বাবা জসিম উদ্দিন আকন্দ ও তার ছেলে জুয়েল আকন্দের বাড়ি জেলার ক্ষেতলাল উপজেলার বানদিঘী গ্রামে।
জয়পুরহাটের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. রাশেদ মোবারক জুয়েল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় বাবা ও ছেলেকে আটক পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। ডাক্তার ও তত্ত্বাবধায়ক পক্ষ থেকে দুটি পৃথক মামলার প্রস্তুতি চলছে।


প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৪ | সময়: ৬:২০ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর