এবার এক যুবককে প্রাণনাশের হুমকি দিলেন গোদাগাড়ীর সেই কাউন্সিলর

স্টাফ রিপোর্টার: মসজিদের ইমামকে এলাকাছাড়া ও প্রাণনাশের হুমকির পর আবারও এক যুবককে প্রাণনাশ ও পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেওয়ার হুমকি দিলো গোদাগাড়ী পৌরসভার সেই কাউন্সিলর। হুমকি দাতা কাউন্সিলরের নাম শহিদুল ইসলাম। সে পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। তার হুমকিতে ভীত হয়ে জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে রাতেই সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেছেন ওই যুবক।
গোদাগাড়ী পৌর এলাকার রামনগর গ্রামের আব্দুর কাইউমের ছেলে সিহাবুল ইসলাম জানান, প্রায় তিনমাস আগে আমার চাচাতো ভাই আব্দুল লতিব মোটরসাইকেলে দুর্ঘটনা হলে অবস্থা গুরুতর হয়। প্রতিপক্ষ ট্রলি চালককে ঘটনাস্থলে আটক করা হলে মিমাংসার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। সেই মিমাংসায় ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলাম উপস্থিত থেকে সড়ক দুর্ঘনার ক্ষতি পূরণ বাবদ ৮৫ হাজার টাকা ধার্য করা হয়। এই টাকা উঠার দায়িত্ব নেন ওই কাউন্সিলর।
গত ২৮ জানুয়ারি লিখিত ভাবে মিমাংসা করা হয়। এর আগে চিকিৎসার খরচ বাবদ ট্রলি ছাড়িয়ে নিয়ে গেলে সেদিন নগদ ২০ হাজার টাকা প্রতিপক্ষরা সেই কাউন্সিলরকে টাকা প্রদান করলেও সে নিজে ১০ হাজার টাকা রেখে দিয়ে বাকি ১০ হাজার টাকা আমাদের দেয়। বাকি টাকা পরে দিবে বলে সময় নেন।
সোমবার রাতে সেই টাকা তার কাছে চাইতে গেলে টাকা দিবে না বলে সাফ জানিয়ে দেয়। এক পর্যায়ে তার সাথে কথাকাটাকাটি হলে পুলিশকে দিয়ে ধরিয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে সে চলে যায়।
তার এই হুমকিতে আমি জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সেই রাতেই আইনগত ভাবে গোদাগাড়ী মডেল থানায় জিডি করেছি।
এবিষয়ে গোদাগাড়ী মডেল থানার ওসি আব্দুল মতিন বলেন, রাতে ওয়ার্ড কাউন্সিলর শহিদুল ইসলামের নামে এক যুবক জিডি করেছেন। সেটি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান। এর আগে গত ২১ ফেব্রুয়ারি ওই কাউন্সিলর গোদাগাড়ী পৌর এলাকার কেল্লাবারুইপাড়া জামে মসজিদের ইমাম সমির বীন জসিমকে মোবাইল ফোনে এলাকা ছাড়া ও প্রাণনাশের হুমকি দেয়। সেই হুমকিতে আরো দুই জনের নাম উচ্চারণ করলে। ওই ইমামসহ আরো একজন তার বিরুদ্ধে গোদাগাড়ী মডেল থানায় জিডি করেন।


প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০২৪ | সময়: ৬:১২ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ