আবার সাংসদ হিসেবে জেসিকে চান চাঁপাইনবাবগঞ্জবাসী

স্টাফ রিপোর্টার: স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, ভাষা সৈনিক বীর মুক্তিযোদ্ধা চাঁপাইনবাবগঞ্জের মরহুম ডা: আ. আ. ম. মেসবাহুল হক (বাচ্চু ডাক্তার)। দেশের জন্য যার অবদান চিরদিন মনে রাখবে দেশবাসী। তারই মেয়ে ফেরদৌসী ইসলাম জেসি এমপি। বাবা যেমন দেশের জন্য যুদ্ধ করেছেন তেমন মেয়ে। এলাকার মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বিগত ৫ বছর কাজ করেছেন জেসি। মানুষের কাছে হয়ে উঠেছে জনপ্রিয়। সেই ভালোবাসা থেকেই এবারও চাঁপাইনবাবগঞ্জ মানুষের চাওয়া আবারও সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য হিসেবে ফেরদৌসী ইসলাম জেসিকে দেখতে চান।
একাদশ জাতীয় সংসদে সংরক্ষিত আসন মহিলা-০৩৮, চাঁপাই নবাবগঞ্জ সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজে গুরুত্বপূর্ন অবদান রেখেছেন ফেরদৌসী ইসলাম জেসি। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার বিভিন্ন উপজেলাসহ সদর উপজেলার বিভিন্ন পৌরসভা ও ইউনিয়নে উন্নয়ন কর্মকান্ডের উঠান বৈঠক দলকে শক্তিশালি করেছেন। এছাড়া তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ড ব্যাপকভাবে প্রচার করেছেন।
সদর উপজেলায় প্রাথমিক শিক্ষাসহ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নতুন ভবন বরাদ্দ এনে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিক্ষার মান উন্নয়নে ভূমিকা রেখেছেন। তার সরকারী বরাদ্দ মাধ্যমে সহস্্রধিক দুস্থ ও অসহায় দলীয় নেতা কর্মিদের বিতরন করে তিনি সুষ্ঠ ব্যবহারের মাধ্যমে সততার পরিচয় রেখেছেন।
তিনি নাচলের সাঁওতাল অধ্যষ্টিত ৫টি গ্রাম ধরইল দিঘি পাড়া, ধরইল শ্যামপুর, গপিনাথপুর, জমিনকমিন ও কার্তিকপুর এলাকার ৭ কিলোমিটারের মধ্যে কোনো প্রাথমিক বিদ্যালয় ছিলো না। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিজে জমি কিনে ওই জমিতে ইলা মিত্রের নামে বাসু গ্রামে প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠাসহ সরকারী করনের ব্যবস্থা করেন। বর্তমানে ওই স্কুলে ২ তলা বিশিষ্ট ভবনে সাঁওতাল শিশুরা লেখাপড়া করার সুযোগ পেয়েছে।
তিনি অক্ল্যান্ত পরিশ্রম করে চর-বাগডাঙ্গায় পদ্মা নদীর সংরক্ষন বাঁধ নির্মান করে ইউনিয়নটিকে ভাঙ্গনের হাত থেকে রক্ষা করেছেন। চাঁপাই নবাবগঞ্জের ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাঁসপাতাল নির্মান করেন। তিনি করোনা মহামারীর সময়ে সাধারণ মানুষের পাশে থেকে জনগনের সেবা প্রদান নিশ্চিত করেছিলেন। তিনি শিল্পঅঞ্চল ও পর্যটন প্রতিষ্ঠায় অগ্রগামী ভূমিকা রাখেন।


প্রকাশিত: ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২৪ | সময়: ৭:১৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ