রাজশাহীতে মাসব্যাপী শুরু হলো পুষ্প প্রদর্শনী ও হস্তশিল্প মেলা

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী নগরীতে মাসব্যাপী শুরু হলো পুষ্প প্রদর্শনী, হস্তশিল্প মেলা ও সাংস্কৃতিক উৎসব। শুক্রবার বিকেলে নগর ভবনের গ্রিন প্লাজায় আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বেলুন-ফেস্টুন উড়িয়ে এই উৎসবের উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। উদ্বোধন শেষে পুষ্প প্রদর্শনীর স্টলগুলো ঘুরে দেখেন তিনি।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহীতে প্রতি বছরের ন্যায় পুষ্প প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। নগরীর বিভিন্ন শ্রেণির সৌখিন নাগরিকরা এ প্রদশর্নীতে আসেন। এ আয়োজনকে উৎসাহিত করতে হবে। গাছ মানুষের পরম বন্ধু। নগরীর নান্দনিকতার সৌন্দর্য্য বৃদ্ধিতে সড়কের বিভাজন ও আইল্যান্ডে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ লাগানো অব্যাহত রয়েছে। এতে নগরীর পরিবেশের উন্নয়ন হয়েছে। ছাদবাগান, বারান্দা কিংবা বাসার আঙ্গিনায় ব্যাপকভাবে বৃক্ষরোপণে উৎসাহিত দিতে বাসাবাড়ির মালিকদের রাসিকের হোল্ডিং ট্যাক্স কমানোর পরিকল্পনা রয়েছে।
রাসিক মেয়র আরো বলেন, রাজশাহী নগরীকে আমরা প্রকৃত অর্থেই গ্রিন সিটি, ক্লিন সিটি হিসেবে গড়ে তুলেছি। এই সুনাম ধরে রেখে নগরীকে আরো সামনের দিকে নিয়ে যাওয়া হবে। নগরীর নতুন সড়কসমূহে দৃষ্টিনন্দন গাছের চারা রোপন করা হবে। সকলের সহযোগিতায় রাজশাহীকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যেতে চাই।
রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও মহানগর নার্সারী মালিক সমিতির উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাজশাহী-২ সদর আসনের সংসদ সদস্য অধ্যক্ষ শফিকুর রহমান বাদশা। স্বাগত বক্তব্য দেন নার্সারি মালিক সমিতির সভাপতি শাহেদুজ্জামান।
অনুষ্ঠানে রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নওশের আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. আসলাম সরকার, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সোহেল, ত্রাণ ও সমাজকল্যান সম্পাদক ফিরোজ কবি সেন্টু, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক শ্যাম দত্ত, মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক আকতার আলী সহ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন নার্সারীর মালিকগণ উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, সিটি করপোরেশনের সার্বিক সহযোগিতায় নগর ভবনের গ্রিন প্লাজায় মহানগর নার্সারী মালিক সমিতি আয়োজিত মাসব্যাপী পুষ্প প্রদর্শনী, হস্ত শিল্প ও সাংস্কৃতিক উৎসবে ৫১ টি স্টল রয়েছে। ২৪টি নার্সারি, খাবার স্টল ৬টি, টবের স্টল ৪টি এবং অন্যান্য স্টল রয়েছে ১৭টি।


প্রকাশিত: জানুয়ারি ২৭, ২০২৪ | সময়: ৪:০০ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর