রাজশাহী সদরের এবারও নৌকার হাল বাদশার হাতে

স্টাফ রিপোর্টার : আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৪ দলীয় জোটের শরিক দলগুলোকে সাতটি আসন ছেড়ে দিয়েছে আওয়ামী লীগ। বৃহস্পতিবার রাতে ১৪ দলের সমন্বয়ক ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন।
আমির হোসেন আমু বলেন, ১৪ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক রাশেদ খান মেননের বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টিকে তিনটি, আরেক শরিক হাসানুল হক ইনুর জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলকে (জাসদ) তিনটি আসন দেয়া হয়েছে।
এছাড়া আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর জাতীয় পার্টিকে (জেপি) একটি আসন ছাড়া হয়েছে। আমির হোসেন আমু জানান, এসব আসনে জোটের প্রার্থীরা নৌকা প্রতীকে ভোট করবেন।
আমু বলেন, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বরিশাল-৩ আসন, ফজলে হোসেন বাদশা রাজশাহী-২ (সদর) আসন এবং সাতক্ষীরা-১ আসন থেকে মুস্তফা লুৎফুল্লাহ নৌকার প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেবেন।
আর জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু কুষ্টিয়া-২ আসন থেকে, লক্ষীপুর-৪ আসন থেকে মোশারফ হোসেন এবং বগুড়া-৪ রেজাউল করিম তানসেন নির্বাচনে অংশ নেবেন।
এছাড়াও জেপির আনোয়ার হোসেন মঞ্জু পিরোজপুর-২ আসন থেকে ১৪ দলের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করবেন। আরেক শরিক বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনকে একটি আসন দেয়া হবে। তবে এটি এখনো চূড়ান্ত হয়নি বলে জানা গেছে।
এ আসনে ১৩ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। যাচাই-বাছাই শেষে সাতজনের প্রার্থীতা বৈধ ঘোষণা করেন রিটানিং অফিসার। বাতিল হওয়াদের মধ্যে দুইজন স্বতন্ত্র প্রার্থী আপিল করেন। কিন্তু আপিলেও তাদের আবেদন নামঞ্জুর হয়েছে। ফলে এই আসনে প্রার্থী থাকছেন সাতজন। তবে এদের মধ্যে রাজনৈতিক কারণে জোটের প্রার্থীকে ছাড় দিয়ে সরে দাঁড়াতে হতে পারে আওয়ামী লীগের মনোনিত প্রার্থী মোহাম্মদ আলী কামালকে।
ফলে ফজলে হোসেন বাদশা ছাড়াও এ আসনে প্রার্থী থাকলেন জাতীয় পার্টির সাইফুল ইসলাম স্বপন, জাসদের আবদুল্লাহ আল মামুন সিদ্দিকী শিবলী, বিএনএনের কামরুল হাসান, বাংলাদেশ সংগ্রেসের মারুফ শাহরিয়ার ও মুক্তিফ্রন্টের প্রার্থী ইয়াসির আলিফ বিন হাবিব।


প্রকাশিত: ডিসেম্বর ১৬, ২০২৩ | সময়: ৭:১৯ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর