সাংসদ সদস্য প্রার্থীর কাছে টাকা দাবী গ্রেপ্তার এক

বড়াইগ্রাম প্রতিনিধি:
নাটোরের বড়াইগ্রামে নির্বাচন অফিস পরিচয়ের প্রতারনার অভিযোগে রিপন খন্দকার (৩৫) নামের এক ব্যাক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার (৪ ) দুপুর পৌনে তিনটার দিকে সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। রোববার রাতে সাংসদ সদস্য প্রার্থীর জাহানারা বেগমের ছেলে বাদি হয়ে জিল্লুর রহমান বড়াইগ্রাম থানায় সাইবার নিরাপত্তা আইনে মামল করেন। রিপন খন্দকার সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি উপজেলার মৃত কুদ্দুস খন্দকারের ছেলে।

 

 

 

মামলা সুত্রে জানা যায়, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাটোর-৪ আসনে জাহানারা বেগম সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। রোববার রাতে নির্বাচন অফিসের লোক পরিচয় দিয়ে ফোন করে রিপন খন্দকার সাংসদ প্রার্থীকে জানায় তার মনোনয়ন পত্রে কিছু ভুল আছে, সংশোধন করতে হবে, এজন্য কিছু টাকা দিতে হবে। সংসদ সদস্য প্রার্থীর সন্দেহ হলে পরিচয় সম্পর্কে অধিকতর নিশ্চিত হওয়ার এক পর্যায়ে বুঝতে পারেন তার সাথে প্রতারণা করা হচ্ছে। পরে সাংসদ সদস্য প্রার্থীর ছেলে বড়াইগ্রাম থানায় মামলা করলে অভিযান চালিয়ে রিপন খন্দকারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এসময় রিপনের খন্দকারের নিকট হতে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত দুইটি বাটন মোবাইল ও ১ টি স্মার্ট মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

 

 

 

 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শরিফ আল রাজীব বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে রিপন খন্দকার নির্বাচন অফিসের লোক পরিচয়ে প্রতারণা করার কথা স্বীকার করেছে। তাকে আদলতে প্রেরন করা হয়েছে। ৫দিনের রিমান্ডের জন্য আবেদন করা হয়েছে।

 

সানশাইন/সোহরাব


প্রকাশিত: ডিসেম্বর ৪, ২০২৩ | সময়: ৫:৩৫ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine