নিজের মেয়েকে ধর্ষণ করায় পিতার যাবজ্জীবন

সানশাইন  ডেস্ক :

নওগাঁ জেলার পোরশা উপজেলার গণেশপুর গ্রামে নিজের মেয়েকে ধর্ষণের মামলায় পিতাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি এক লাখ টাকা অর্থদন্ড, অনাদায়ে তিন মাস বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করার আদেশ প্রদান করেছেন আদালত। জরিমানার অর্থ ধর্ষণের শিকার মেয়েকে প্রদানের নির্দেশ দেন আদালতের বিচারক।

 

বৃহস্পতিবার নওগাঁর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মোঃ মেহেদী হাসান তালুকদার এ আদেশ প্রদান করেন। জানা গেছে, পোরশা উপজেলার পোরশা গ্রামের মরহুম শরিফুদ্দীন শাহ্; (গেনা হুজুর) এর বাড়ির কাজের মেয়েকে(১৪) তার আপন পিতা(৪১) ২০২০ সালের ২৫ ডিসেম্বর সন্ধায় নিজ বাড়িতে নিয়ে আসার সময় উপজেলার গণেশপুর গ্রামের কাঁচা রাস্তার পাশে জনৈক নূর হোসেনের আম বাগানে জনশূন্য এলাকায় পিতা জোর পূর্বক তার মেয়েকে ধর্ষণ করে।

 

রাতে মেয়ে বাড়িতে এসে তার মাকে ঘটনা বললে তার মা বাদী হয়ে পোরশা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে পিতার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে থানা পুলিশ। ২০২২ সালে ১৯মে মামলাটির সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হয়ে চলতি বছরের ১৪নভেম্বর দশ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণে সমাপ্ত করা হয়। গত মঙ্গলবার উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক শোনেন আদালত। এরপর রায় ঘোষণার জন্য বৃস্পতিবার দিন ধার্য করা হয়।

 

আদালতের বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মোঃ মেহেদী হাসান তালুকদার জনাকীর্ণ আদালতে ধর্ষণের শিকার মেয়ের বাবাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও এক লাখ টাকা অর্থদন্ড অনাদায়ে তিন মাস বিনাশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করার আদেশ প্রদান করেন।

 

আসামী পূর্ব থেকেই জেল হাজতে থাকায় তাকে প্রদত্ত সাজা পড়ে শুনানো হয়। এ মামলায় রাষ্টপক্ষের আইনজীবী হিসাবে মকবুল হোসেন ও আসামী পক্ষে আইনজীবী শুভ্র সাহা মামলা পরিচালনা করেন।

সানশাইন/ শামি


প্রকাশিত: নভেম্বর ৩০, ২০২৩ | সময়: ৫:২৯ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine