নারীর আত্নহত্যা, লাশ দেখতে এসে প্রতিবেশীর মৃত্যু 

দুর্গাপুর প্রতিনিধি:

দুর্গাপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে গলায় ফাঁস দিয়ে সেলিনা বেগম (৪৩) নামের এক স্বামী পরিত্যক্তা নারী আত্নহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে। সেলিনা উপজেলার ঝাঁলুকা ইউনিয়নের কাঁঠালবাড়ীয়া গ্রামের আসলাম উদ্দিনের প্রাক্তন স্ত্রী।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে, আত্নহত্যাকারী সেলিনার লাশ দেখতে এসে প্রতিবেশী ফাতেমা বেগম (৫০) নামের এক নারী স্টোক করে মারা গেছেন। তিনি একই গ্রামের আব্দুল খালেকের স্ত্রী। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

সেলিনা বেগমের বড় ছেলে আসিফ উদ্দিন বলেন, প্রায় ১৫ বছর আগে আমার বাবার সঙ্গে মায়ের বি”েছদ হয়। বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করে অন্যত্র বাড়ি করে সেখানে স্ত্রী নিয়ে থাকেন। আমরা দুই ভাই আসিফ ও রবিন। আমার মা রবিনের সঙ্গেই থাকতো। কিছু দিন থেকে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলহ চলছিল। গতকাল ( রবিবার) ছোট ভাই রবিনের স্ত্রী বাসায় ছিল না। এ সুযোগে বাড়ির সবার অগোচরে বেলা ১১টার দিকে ছোট ভাই রবিনের শয়ন ঘরে আমার মা গলায় ফাস দিয়ে আত্নহত্যা করে।

জানতে চাইলে দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হক বলেন, দুই জন মারা গেছেন। একজন গলায় ফাস দিয়ে অন্যজন লাশ দেখতে এসে স্টোক করে মারা গেছেন।

ওসি আরও বলেন, মৃতের মরদেহে কোথাও আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। সে ঘরে দরজা বন্ধ করে গলায় ফাঁস দেয়। পারিবাকি কোন অভিযোগ না থাকায় লাশ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

সানশাইন / শামি


প্রকাশিত: নভেম্বর ২৭, ২০২৩ | সময়: ৭:২৩ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine