সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন নিয়োগ বন্ধের দাবি কর্মচারীদের

স্টাফ রিপোর্টার:

সরকারি সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নতুন নিয়োগ বন্ধের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কর্মরত বেসরকারি কর্মচারীরা। গতকাল শনিবার রাজশাহী কলেজের প্রশাসনিক ভবনের সামনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলন থেকে তারা এ দাবি জানান। সরকারি কলেজের বেসরকারি কর্মচারী ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির ব্যানারে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

 

এসময় লিখিত বক্তব্যে তারা বলেন, সরকারি কলেজগুলোতে মোট কর্মচারীর মধ্যে ৯৫ শতাংশ অর্থাৎ ৬ হাজারের বেশি বেসরকারি কর্মচারী। দেশে প্রায় ৪০০টি সরকারি কলেজ ও তিনটি সরকারি মাদ্রাসায় বেসরকারি কর্মচারীরা গত ৫ থেকে ৩৫ বছর নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী হিসেবে কর্মরত। মাসিক বেতন ৫ হাজার থেকে ৯ হাজার টাকা। এ অল্প বেতনে পরিবার-পরিজন নিয়ে খুবই কষ্টে জীবনযাপন করতে হচ্ছে। সরকারি কলেজ ও মাদ্রাসা পরিচালনাকারী মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর কর্তৃপক্ষ ২০১৩ সালে জনবল নিয়োগ দেয়। কিন্তু বেসরকারি কর্মচারীদের কোনো অগ্রাধিকার দেয়নি। তারা বলেন, সরকারি কলেজের বেসরকারি কর্মচারীদের চাকরি রাজস্ব খাতে স্থানান্তর করতে হবে।

 

তারা বলেন, চাকরি রাজস্ব খাতে স্থানান্তরের আগ পর্যন্ত সরকারি বেতন স্কেল অনুযায়ী বেতন-ভাতা প্রদান করতে হবে। অস্থায়ীভাবে নতুন নিয়োগ বন্ধ করে কর্মরতদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে নিয়োগ প্রদান করতে হবে। দাবি না মানলে প্রতিটি কলেজে এক ঘণ্টা কর্মবিরতি পালন করা হবে জানান তারা।

 

এ সময় সরকারি কলেজের বেসরকারি কর্মচারী ইউনিয়ের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আলী মোর্তুজাসহ সংগঠনের কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।


প্রকাশিত: অক্টোবর ১, ২০২৩ | সময়: ১২:৪৭ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine