ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরে র‌্যালি ও আলোচনা সভা

সানশাইন ডেস্ক : ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের উদ্যোগে মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ ইউসুফ এর নেতৃত্বে একটি বর্নাঢ্য র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। র‌্যালিতে ন্যাশনাল কন্ট্রোল ল্যাবরেটরীসহ ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ, বাংলাদেশ ঔষধ শিল্প সমিতির প্রতিনিধি, বিভিন্ন ঔষধ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের ফার্মাকোভিজিল্যান্স সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। র‌্যালিটি ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের প্রধান কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে জনস্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠান চত্ত্বর প্রদক্ষিণ করে পুনরায় প্রধান কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।
র‌্যালি শেষে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের সভা কক্ষে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ ইউসুফ। সভায় মাহবুব হোসেন এর স্বাগত বক্তব্যের পর দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয়, শ্লোগান ও গুরুত্ব তুলে ধরে একটি সংক্ষিপ্ত পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন ফার্মাকোভিজিল্যান্স বিভাগের প্রধান ড. আকতার হোসেন।
সভাপতির বক্তব্যে মেজর জেনারেল মোহাম্মদ ইউসুফ বলেন, স্বাস্থ্যসেবায় রোগীর সুরক্ষা নিশ্চিতকরণে রোগী ও পরিবারের সম্পৃক্ততা একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। স্বাস্থ্য সুরক্ষায় রোগীর সম্পৃক্ততার মাধ্যমে শতকরা ১৫ ভাগ ক্ষতির পরিমান কমিয়ে অসংখ্য রোগীর জীবন রক্ষা করা এবং চিকিৎসা ব্যয় উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস করা সম্ভব। এ বছরের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে “রোগীর নিরাপত্তার জন্য রোগীদের সম্পৃক্তকরণ”। রোগীর নিরাপত্তার স্বার্থে বিষয়টি জোরদারকরণের জন্য আহ্বান জানানো হয়।
অন্যান্যদের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের পরিচালক আসরাফ হোসেন, বাংলাদেশ ঔষধ শিল্প সমিতির এক্সিকিউটিভ মেম্বার ও স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস্ লিঃ এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর মিজানুর রহমান, অধ্যাপক ডা: শাহনিলা ফেরদৌসী, আবদুল্লাহ প্রমূখ।
আলোচনায় বিভিন্ন পরিসংখ্যান তুলে ধরেন ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে রোগীর সচেতনা বৃদ্ধি, রোগী ও তার পরিবারের সম্পৃক্ততা, রোগীর ক্ষমতায়ন এবং সকলের অংশগ্রহন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মত প্রকাশ করেন।


প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২৩ | সময়: ৫:২৬ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর