রাজশাহী ওয়াসা’র আয়োজনে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস উন্নয়ন মেলা

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহী ওয়াসা’র আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় ‘জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস উন্নয়ন মেলা’ উদযাপিত হয়েছে। সেই লক্ষ্যে রবিবার সকাল ১০টায় ওয়াসা ভবন চত্বরে ‘সেবা ও উন্নতির দক্ষ রূপকার, উন্নয়নে-উদ্ভাবনে স্থানীয় সরকার’ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে তিন দিনব্যাপী এই মেলা’র কর্মসূচি আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে রাজশাহী ওয়াসা’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাকীর হোসেনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী ওয়াসা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী এম. শামীম উজ জামান বসুনিয়া, পিইঞ্জ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী ওয়াসা বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান জনাব শাহীন আক্তার রেনী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অর্থ ও প্রশাসন) এস.এম. তুহিনুর আলম, উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (প্রকৌশল) আল্লা হাফিজ, রাজশাহী ওয়াসা বোর্ডের সদস্য আব্দুল মমিন ও জনাব শিবলী নোমান, রাজশাহী ওয়াসার চিফ ইঞ্জিনিয়র পারভেজ মামুদ, রাজশাহী ওয়াসার সচিব বরমান হোসেনসহ ওয়াসার কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ।
অন্ষ্ঠুানে প্রধান অতিথি বলেন, রাজশাহীর জনগন মেয়র মহোদয়কে আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করে আসছে। বহুবছর আগে আমি যখন রাজশাহীতে আসি তখনকার রাজশাহী ও বর্তমানের রাজশাহীর মধ্যে অনেক তফাৎ, অবকাঠামোগত ব্যাপক উন্নয়ন লক্ষ্য করা যায়। রাজশাহী ওয়াসা বেশকিছু উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নেওয়ায় ভবিষ্যতে পানির গুণগতমান বৃদ্ধির সাথে কিছুটা মূল্য বৃদ্ধি পাবে। তবে পানির গুণগত মান বৃদ্ধির স্বার্থে ও বৈশ্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় রাজশাহী মহানগরবাসী বরাবরের মতোই রাজশাহী ওয়াসাকে সহযোগিতা করবে বলে আশা করছি। রাজশাহী ওয়াসার সম্মানিত ভাইস চেয়ারম্যান বলেন কেন্দ্রীয়ভাবে স্থানীয় সরকার দিবস গত ১৪ সেপ্টেম্বর প্রথমবারের উদযাপিত হয়েছে, ঐ অনুষ্ঠানে আমি উপস্থিত ছিলাম। এ দিবসটি উপলক্ষে রাজশাহী ওয়াসা তিনদিনব্যাপি জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস উন্নয়ন মেলা আয়োজন করেছে। উপস্থিত সেবাগ্রহীতাদের সেবাগ্রহণের জন্য অনুরোধ করেন এবং সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
ওয়াসা ভবন ঘুরে দেখা গেছে, উন্নয়ন মেলা উদযাপন উপলক্ষে ভবনটিকে স্মার্ট-সেবামুখী দিকনির্দেশনামূলক ফেস্টুন ও ব্যানার দিয়ে সুসজ্জিত করা হয়েছে। এছাড়াও ওয়াসা কর্তৃক জনগণকে প্রদেয় সেবাগুলো তাৎক্ষণিকভাবে প্রদানে জন্য সেবা বুথের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মেলা সকাল ১০টা থেকে বেলা ৪টা পর্যন্ত চলবে এবং শেষ হবে ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩।
উল্লেখ্য, রাজশাহী ওয়াসা’র সাথে জনগণের সম্পৃক্ততা বাড়াতে এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে। রাজশাহী ওয়াসা সূত্রে ২০১০ সাল হতে অদ্যাবধি অর্জিত সাফল্য সমূহ জানাগেছে, পানির কভারেজ ৫৬.৮৮% থেকে ৮৭.৫৮ % বৃদ্ধি, ৫০টি নতুন উৎপাদক নলকূপ স্থাপন, ৩৪১ কি.মি. নতুন পাইপ লাইন স্থাপন, পানির উৎপাদন ৬৩ এমএলডি হতে ১২৩ এমএলডি বৃদ্ধি করণ, রাজশাহী ওয়াসায় গ্রাহক সংখ্যা ২৬৫৬৫ হতে ৪৯৪৮৫ বৃদ্ধি, ২০১১ সালে ২৭ এমএলডি উৎপাদন ক্ষমতা সম্পন্ন একটি ভূ-উপরিস্থিত পানি শোধনাগার নির্মাণ, সার্বক্ষণিক পানি সরবরাহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ২০১৫ সালে ২০টি মোবাইল জেনারেটর ক্রয়, জরুরী পানি সরবরাহের লক্ষ্যে ২০১৫ সালে ০২টি পানির ট্যাংকার ক্রয় করা হয়েছে। ২০১৫ সালে একটি আধুনিক পানি পরীক্ষাগার চালু করা হয়েছে। এছাড়াও পানির গুণগতমান বৃদ্ধির জন্য পাইপ লাইন নেটওয়ার্কে ১২০০টি ওয়াস আউট স্থাপন করা হয়েছে। ২০১৪ সালে রাজশাহী ওয়াসার নিজস্ব ওয়েব পোর্টাল চালু করা হয়েছে। রাজস্ব আয় বাৎসরিক ২.৮৩ কোটি হতে বৃদ্ধি পেয়ে ১৬.০৮ কোটিতে উন্নীত করা হয়েছে। কম্পিউটারাইজড বিলিং পদ্ধতিসহ মোবাইল ব্যাংকিং যেমন-বিকাশ, রকেট, একপে ও রাকাব মোবাইল এ্যাপস এর মাধ্যমে পানির বিল আদায়ের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। রাজশাহী ওয়াসা ৮০% এর বেশী নথি ডি-নথিতে নিষ্পত্তি করছে।


প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১৮, ২০২৩ | সময়: ৪:০৭ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ