সর্বশেষ সংবাদ :

ডেঙ্গু: এ বছর ভর্তি রোগী লাখ ছুঁই ছুঁই

সানশাইন ডেস্ক: দেশে গত একদিনে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরো ২১৩৪ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের নিয়ে এ বছর মোট ভর্তি রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯৯ হাজার ৯৯৪ জনে। এর আগে ২০১৯ সালে সর্বাধিক ১ লাখ ১ হাজার ৩৫৪ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। গত কিছুদিন ধরে দৈনিক যত রোগী শনাক্ত হচ্ছে, তার ধারাবাহিকতা থাকলে সোমবারই আগের রেকর্ড ভাঙবে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, রোববার সকাল পর্যন্ত আরও ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে, তাতে এ বছর মশাবাহিত এ রোগে মৃতের মোট সংখ্যা বেড়ে হয়েছে রেকর্ড ৪৭৬ জন। নতুন রোগীদের মধ্যে ঢাকায় ভর্তি হয়েছেন ৭৮৫ জন এবং অন্যান্য জেলায় ১৩৪৯ জন। আর মারা যাওয়া ১০ জনের মধ্যে ছয়জন ঢাকার, বাকিরা বাইরের। বর্তমানে সারাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ৭ হাজার ৫৮২ জন রোগী ভর্তি আছেন। তাদের মধ্যে ঢাকায় ৩৫৩২ জন এবং ঢাকার বাইরের বিভিন্ন জেলায় ৪০৫০ জন।
এ বছর ডেঙ্গুর প্রকোপ দ্রুত বাড়ছে। জুন মাসে যেখানে পাঁচ হাজার ৯৫৬ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন, জুলাই মাসে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৪৩ হাজার ৮৫৪ জনে। আর অগাস্টের ১৯ দিনেই ৪৮ হাজার ১৬২ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। মাসের হিসাবে জানুয়ারিতে ভর্তি হয়েছে ৫৬৬ জন, ফেব্রুয়ারিতে ১৬৬ জন, মার্চে ১১১ জন, এপ্রিলে ১৪৩ জন, মে মাসে এক হাজার ৩৬ জন ভর্তি হয়েছেন।
সারাদেশে গত জুনে যেখানে ৩৪ জনের মৃত্যু হয়েছিল, পরের মাসে সেই সংখ্যা হয় ২০৪। আর অগাস্টের ১৯ দিনে সেই সংখ্যা ছাড়িয়ে মৃত্যু হয়েছে ২২৫ জনের। এর আগে জানুয়ারিতে ৬ জন, ফেব্রুয়ারিতে ৩ জন এবং এপ্রিল ও মে মাসে দুজন করে প্রাণ হারান ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে। এ বছর এইডিস মশা শনাক্তে চালানো জরিপে ঢাকায় মশার যে উপস্থিতি দেখা গেছে, তাকে ঝুঁকিপূর্ণ বলছেন বিশেষজ্ঞরা। এ অবস্থায় সামনে ডেঙ্গুর প্রকোপ আরও বাড়ার আশঙ্কা করেছেন তারা।
ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে এ বছর যাদের মৃত্যু হয়েছে, তাদের প্রায় সবাই ডেঙ্গু হেমোরেজিক ফিভারে ভুগছিলেন এবং শক সিনড্রোমে মারা গেছেন। এইডিস মশাবাহিত এই রোগে আক্রান্ত হয়ে গত বছর ৬২ হাজার ৩৮২ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হন।


প্রকাশিত: আগস্ট ২১, ২০২৩ | সময়: ৫:২৫ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ