সর্বশেষ সংবাদ :

রাণীনগরে রাস্তা বন্ধ করায় শতাধিক পরিবার অবরুদ্ধ

রাণীনগর প্রতিনিধি: নওগাঁর রাণীনগরে গ্রামীন জনপদে চলাচলের রাস্তা জোরপূর্বক বন্ধ করায় শতাধিক পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পরেছে। দীর্ঘ দিনের এই রাস্তা প্রাচীর দিয়ে বন্ধ করে দেওয়ার খবর পেয়ে রাণীনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ বন্ধ করে দিয়েছে।
অবরুদ্ধ গ্রামবাসি দূত এই প্রাচীরটি ভেঙ্গে জনস্বার্থে চলাচলের এই রাস্তাটি উন্মুক্ত করে দেওয়ার লক্ষ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং অফিসার ইনচার্জ রাণীনগর থানাকে প্রায় শতাধিক গ্রামবাসির স্বাক্ষরিত একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় পক্ষে বিপক্ষে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা দেখা দিয়েছে।
জানা গেছে, উপজেলার গোনা ইউনিয়নের ঘোষগ্রাম শাহপাড়া গ্রামে প্রায় দেড় শ’ পরিবার বসবাস করে। আত্রাই-রাণীনগর প্রধান সড়ক থেকে পশ্চিমে শাহ্ পাড়া গ্রামের প্রবেশ মুখে একই গ্রামের মৃত গোলাম রসুলের পুত্র আব্দুল মতিন গং মঙ্গলবার মধ্য রাত থেকে নারী-পুরুষ মিলে এই চলাচলের রাস্তার উপরে ইটের প্রাচীর দিয়ে বন্ধ করে দেয়।
বুধবার সকালে গ্রামবাসিরা প্রাচীর দিতে নিষেধ করলে তাদের কথা না শুনে কাজ চালাতে থাকে। এক পর্যায় উভয় পক্ষের মধ্যে গালিগালাজ ও মারামারির উপক্রম হলে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে নির্মানাধীন প্রাচীরের কাজ বন্ধসহ উভয় পক্ষকে ঘটনাস্থল থেকে তাড়িয়ে দেয়। ইতি মধ্যে মতিন গং রাস্তাটি বন্ধ করে প্রাচীন নির্মাণ কাজ শেষ করায় অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে প্রায় শতাধিক পরিবার।
ওই গ্রামের ভূক্তভূগী আব্দুল মজিদ শাহ্, ফারুক, জসিম, লুৎফর বলেন, এটা আমার পাড়ার এক মাত্র চলাচলের রাস্তা। সে রাস্তা রাতের আঁধারে আব্দুল মতিন গংরা নারী পুরুষ সবাই মিলে প্রাচীর দিয়ে বন্ধ করে দেয়। সকাল থেকে এই পাড়ার মানুষ আর প্রধান সড়কে যেতে পারছে না।
সবাই তারা অবরুদ্ধ হয়ে আছে। বাধ্য হয়ে অন্য পথে চলাচল করে নিজে নিজে ব্যক্তিগত কাজ সম্পন্ন করছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব উপজেলা প্রশাসন ও থানা পুলিশ মিলে এই প্রাচীরটি অপসারণ করে এই পাড়ার মানুষের চলাচলের পথ উন্মক্ত করে দেওয়া হোক।
এব্যাপারে আব্দুল মতিন বলেন, আমরা একই পাড়ায় বসবাস করি। আমার বাড়ির পানি নিস্কাসনের পথ বন্ধ করে দেওয়ায় আমরা গ্রামের মাতব্বর প্রধানের কাছে সুষ্ঠ সমাধানের জন্য বার বার ধর্না দিয়ে কোন ব্যবস্থা তারা করেনি। আর এই রাস্তার জমিটা আমাদের। আমরা বাড়িতে চলা ফেরা করার জন্য রাস্তা রেখেছিলাম। আমাদের আর প্রয়োজন হয় না বলে আজ বন্ধ করে দিয়েছি।
রাণীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ বলেন, ঘোষগ্রাম শাহ্ পাড়া গ্রামের চলাচলের রাস্তায় প্রাচীর দিয়ে বন্ধ করে দিচ্ছে এমন খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠায়। দু’পক্ষের সাথে কথা বলে পরিস্থিতি শান্তসহ কাজ বন্ধ করে রাখা হয়েছে। প্রয়োজনীয় তদন্তসহ দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


প্রকাশিত: আগস্ট ৩, ২০২৩ | সময়: ৫:৩৪ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ