সর্বশেষ সংবাদ :

কোহলির জন্য বিশ্বকাপ জিততে সেরাটা দেবে ভারতের সবাই’

স্পোর্টস ডেস্ক: শচিন টেন্ডুলকারের শেষ বিশ্বকাপে ভারত দলের সবার লক্ষ্য ছিল একটাই, শিরোপা। নিজেদের সর্বোচ্চটা উজাড় করে দিয়ে বৈশ্বিক আসর থেকে কিংবদন্তির বিদায় স্মরণীয় করে রাখতে পেরেছিল তারা। উত্তরসূরিদের ২০১১ সালের ওই আসরের পুনরাবৃত্তি করতে বললেন বিরেন্দর শেবাগ। এক সময়ের এই বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান মনে করেন, এবার বিরাট কোহলির জন্য বিশ্বকাপ জেতা উচিত ভারতের।
ঘরের মাঠে ২০১১ সালে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বে দীর্ঘ অপেক্ষার ইতি টেনে নিজেদের দ্বিতীয় ওয়ানডে বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত। ওয়াংখেড়েতে ফাইনালে তারা শ্রীলঙ্কাকে ৬ উইকেটে হারিয়ে শিরোপা উল্লাস করেছিল। ওই টুর্নামেন্টের আগে আলোচনায় ছিলেন টেন্ডুলকার। কারণ আসরটি যে ছিল তার শেষ বিশ্বকাপ। ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ ওয়ানডে বিশ্বকাপে এসে শিরোপার স্বাদ পান তিনি। ওই দলের সদস্য শেবাগ বললেন, দলের সবার চাওয়া ছিল কেবল ব্যাটিং গ্রেটকে বৈশ্বিক শিরোপা জেতানো।
২০১১ সালের বিশ্বকাপজয়ী দলের আরেক সদস্য ছিলেন তখনকার তরুণ কোহলি। শিরোপা উল্লাস করার সময় টেন্ডুলকারকে কাঁধে নিয়ে পুরো মাঠে চক্কর দেন তিনি। টেন্ডুলকারের মতোই ভারতীয় ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা ব্যাটসম্যানদের একজন কোহলি। সময়ের সেরা ক্রিকেটারদের একজনও তিনি। কিন্তু ২০১৩ সালে ইংল্যান্ডে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর আর কোনো আইসিসি ট্রফি জিততে পারেনি ভারত। সবশেষ দুটি ওয়ানডে বিশ্বকাপে তারা বিদায় নেয় সেমি-ফাইনাল থেকে।
বিশ্বকাপ ট্রফি নিয়ে বিরেন্দর শেবাগ (বাঁয়ে) ও মুত্তিয়া মুরালিধরনের মজার মুহূর্ত। ভারতের মাটিতে আবারও ফিরছে বিশ্বকাপ। আগামী ৫ অক্টোবর আহমেদাবাদে নিউ জিল্যান্ড-ইংল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে পর্দা উঠবে ওয়ানডের ত্রয়োদশ বৈশ্বিক আসরের। মুম্বাইয়ের একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলন করে মঙ্গলবার আসছে বিশ্বকাপের সূচি ঘোষণা করা হয়। সেখানেই শেবাগ বলেন, এটাই বড় সুযোগ তার উত্তরসূরি কোহলির শিরোপা খরা কাটানোর। এই জন্য দলের সবার সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করা উচিত বলে মনে করেন তিনি।
“আমরা ওই বিশ্বকাপটি (২০১১) টেন্ডুলকারের জন্য খেলেছিলাম। আমরা যদি বিশ্বকাপ জিতি, তাহলে শচিনের জন্য দারুণ এক বিদায় হবে (এই ভাবনা ছিল সবার)। বিরাট কোহলিও এখন একই। সবাই তার জন্য বিশ্বকাপ জিততে চাইবে। সে সবসময়ই শতভাগের বেশি দেয়।” “আমার মনে হয়, বিরাট কোহলিও এই বিশ্বকাপের অপেক্ষায় আছে। আহমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে ১ লাখ মানুষ আপনাকে দেখবে। বিরাট জানে, এই পিচ কেমন আচরণ করবে। আমি নিশ্চিত সে অনেক রান করবে এবং ভারতকে বিশ্বকাপ জেতাতে সেরাটা দেবে।”
বিশ্বকাপের সবচেয়ে প্রতীক্ষিত ভারত-পাকিস্তান ম্যাচটি মাঠে গড়াবে আগামী ১৫ অক্টোবর, আহমেদাবাদে। সবার মতো ম্যাচটি দেখার অপেক্ষায় আছেন শেবাগও। “ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের জন্য সবাই মুখিয়ে আছে। সবার মতো আমিও। ওই দিন কী হবে আমি নিশ্চিত নই। তবে চাপ যে দল ভালো সামাল দিতে পারবে তারাই জিতবে।” চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দল ভারত ও পাকিস্তান বিশ্বকাপের সেমি-ফাইনাল খেলবে, আশায় আছেন শেবাগ। শেষ চারে তাদের সঙ্গে অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডকেও দেখছেন তিনি।


প্রকাশিত: জুন ২৮, ২০২৩ | সময়: ৫:০১ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর