সর্বশেষ সংবাদ :

লিটনের পক্ষে মাঠে সক্রিয় আ’লীগ

স্টাফ রিপোর্টার : রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে ভোটের আনুষ্ঠানিক প্রচার শুরু হবে আগামী ২ জুন। এখানে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বতা করছেন চারজন। এবারের নির্বাচনে রাসিকের ফের হেভিওয়েট প্রার্থী আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এএইচএম খায়রুজ্জামাান লিটন। তফসিল ঘোষনার পর থেকে মাঠে রয়েছেন লিটন শুরু থেকেই সঙ্গে আছে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকমীরা।
খায়রুজ্জামান লিটন প্রতিদিনই বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সঙ্গে মতবিনিময় অব্যাহত রেছেন। আর আওয়ামী লীগের কর্মীরা নেমেছেন মাঠে। সর্বশেষ লিটনের পক্ষে দৃঢভাবে মাঠে থাকার অঙ্গিকার করেছেন রাজশাহী ১৪ দলের নেতারা। তারা মেয়র প্রার্থী লিটনের হাতে হাত রেখে অঙ্গিকার করেছেন নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করতে শেষ পর্যন্ত মাঠে থাকবেন। লিটনের পক্ষে কাজ করবেন।
রাজশাহী সিটিতে মেয়রপদে প্রতিদ্বন্দ্বি অন্য তিনজনের খবর নেই এখন পর্যন্ত ভোটের মাঠে। তবে তারা ভোটে অংশ নিয়েছেন। মনোনয়ন দাখিল করেছেন। সবার প্রার্থীতা বৈধ হয়েছে। তবে ভোটের মাঠে কোনো হাকডাক নেই তাদের।
তবে রাজশাহীর ভোটের মাঠ এবার অনেকটা আওয়ামী লীগের প্রাথী লিটন কেন্দ্রিক। শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বীতা হওয়ার শঙ্কা নেই। তারপরেও নির্ভার থাকতে চান না আওয়ামী লীগের প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন। ওয়ার্ড পর্যায়ে কর্মী চাঙা করতে দিনরাত চলছে মতবিনিময়। পাড়ায় পাড়ায় মতবিনিময় করছেন লিটন ও তার স্ত্রী।
এদিকে শুক্রবার লিটনের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের লিফলেট বিতরণ করেছেন বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের সভাপতি নাসির উদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু। তিনি রাজশাহীতে একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার পর নগরীতে এসে স্থানীয় নাট্যজনদের সঙ্গে নিয়ে লিটনের পক্ষে উন্নয়ন বার্তা সম্বলিত লিফলেট বিতরণ করেছেন নগরীতে। সাধারণ মানুষকে উন্নয়নের জন্য নৌকার প্রার্থী লিটনের পক্ষে থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।
এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে রাজশাহীর ১৪ দলের শীষ নেতারা লিটনের হাতে হাত রেখে আসন্ন সিটি নির্বাচনে নৌকার পক্ষে থাকার অঙ্গিকার ব্যস্ক করেছেন। এ সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা। এখানে রাজশাহী নগর ১৪ দলের সকল শীর্ষ নেতা ও কর্মিরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত ও ১৪ দল সমর্থিত মেয়র প্রার্থী এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে বিজয়ী করতে ৩০ নম্বর ওয়ার্ড (দক্ষিণ) আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা হয়। এতে অংশ নেন নগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সমাজসেবী শাহীন আকতার রেণী।
শাহীন আকতার রেণী বলেন, সর্বক্ষেত্রে রাজশাহীর উন্নয়ন হয়েছে। রাজশাহীর উন্নয়নের এই ধারা ধরে রাখতে লিটনকে আরেকবার মেয়র নির্বাচিত করা প্রয়োজন। কর্মীরা যাতে মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়ে লিটনের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড নিয়ে কথা বলতে পারে, সেজন্য মতবিনিময় করা হচ্ছে। কর্মীরা সংগঠনের প্রাণ। তারাই প্রার্থীকে জয়ী করতে ভূমিকা রাখেন। আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রতিটি ওয়ার্ডের কর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করা হচ্ছে। যাতে ২১ জুন নাগরিকরা ভোটকেন্দ্রে গিয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন, কর্মীরা যাতে সেই উদ্যোগ নেয়।

এদিকে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও মেয়র প্রার্থী এএইচএমখায়রুজ্জামান লিটন শুক্রবার রাজশাহী মহানগরীর বখশীয়া খানকাহ শরীফ মসজিদে পবিত্র জুম্মার নামাজ আদায় করেছেন। জুম্মার নামাজ আদায় শেষে বখশীয়া খানকাহ মাজার শরীফ জিয়ারত করেন ও মুসল্লীদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। এরআগে সেখানে পৌছালে সাবেক রাসিক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান বখশীয়া খানকাহ শরীফ কমিটির নেতৃবৃন্দ।
এ সময় রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যান সম্পাদক ফিরোজ কবীর সেন্টু, শাহ মখদুম থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহাদত আলী শাহু, ১৭ নং ওয়ার্ড (পূর্ব) আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সারোয়ার হোসেনসহ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মুসল্লীরা উপস্থিত ছিলেন।


প্রকাশিত: মে ২৭, ২০২৩ | সময়: ৫:৩৪ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর