সর্বশেষ সংবাদ :

র‌্যাব সদস্য পরিচয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদাবাজি, গ্রেপ্তার ৩

স্টাফ রিপোর্টার, নওগাঁ: নওগাঁর বদলগাছী থেকে বিভিন্ন সময় র‌্যাব পরিচয়ে চাঁদা দাবি ও প্রতারণার অভিযোগে তিন জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৫ জয়পুরহাট ক্যাম্পের সদস্যরা। এসময় তাদের কাছ থেকে নগদ টাকা ও মোটর সাইকেল জব্দ করা হয়।
বুধবার বিকেলে র‌্যাব-৫ ক্যাম্প থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এর আগে ভোর রাতে নওগাঁর বদলগাছীর কেশাইল এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।
গ্রেফতাররা হলো, নওগাঁর মহাদেবপুরে উপজেলার কালু শহর গ্রামের সামছুল আলমের ছেলে এলিট কবির (২৩), একই গ্রামের ময়েজউদ্দিন দেওয়ানের ছেলে সনোয়ার হোসেন (৩৪) ও পত্নীতলা উপজেলার ঘোষনগর গ্রামের সালেহ মাহামুদের ছেলে সুলতান মাহামুদ (৩১)।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গ্রেফতারকৃতদের প্রতারণা ও চাঁদা আদায় করাই ছিল তাদের মূল কাজ। এদের মধ্যে এলিট কবির চক্রের মূলহোতা ছিলেন। তারা বিভিন্ন সময় র‌্যাব সদস্য পরিচয়ে নওগাঁ জেলার বিভিন্ন এলাকায় সংঘবদ্ধ হয়ে সাধারণ মানুষকে ভয়ভীতি প্রদর্শনপূর্বক চাঁদাবাজি করতেন।
বুধবার ভোর রাতে নওগাঁর বদলগাছীর কেশাইল এলাকায় এক ব্যক্তির বাড়িতে গিয়ে র‌্যাব পরিচয় দিয়ে তারা চাঁদা দাবি করছিল এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে নগদ ২৭ হাজার ৫শ টাকা ও একটি মোটরসাইকেল জব্দ করা হয়।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা দীর্ঘদিন ধরে নিজেদেরকে ভুয়া র‌্যাব সদস্য হিসেবে পরিচয় দিয়ে সাধারণ মানুষকে ভয়ভীতি প্রদর্শনপূর্বক চাঁদাবাজির কথা স্বীকার করেছে। তাদের বিরুদ্ধে বদলগাছী থানায় আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।
বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিয়ার রহমান বলেন, র‌্যাবের অভিযানে গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে। বুধবার দুপুর দেড়টা নাগাদ উপজেলার কেশাইল গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে মোত্তাকিন হোসেন বাদী হয়ে এই মামলা দায়ের করেছেন। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে মামলা রুজুর পরই আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।


প্রকাশিত: মে ১১, ২০২৩ | সময়: ৫:২৩ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ