রাজশাহী সিটি নির্বাচন : এবার প্রথম ভোট দেবেন ৩০ হাজার তরুণ-তরুণী

স্টাফ রিপোর্টার : ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২১ জুন রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে ৩০ হাজার ১৫৭ জন তরুণ-তরুণী প্রথম ভোট দিবেন। বুধবার রাজশাহী জেলা নির্বাচন অফিসার মো. আবুল হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
রাজশাহী জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীতে এবার ৩ লক্ষ ৫২ হাজার ১৫৭ জন ভোটার ভোট দিবেন। এরমধ্যে নতুন ভোটার ৩০ হাজার ১৫৭ জন। পুরুষ ভোটার ১ লক্ষ ৭১ হাজার ১৮৫ জন এবং নারী ১ লক্ষ ৮০ হাজার ৯৭২ জন। এর মধ্যে ৩০ হাজার ১৫৭ জন তরুণ-তরুণী প্রথম ভোট দিবেন। গত বছর ভোটার সংখ্যা ছিলো ৩ লাখ ২২ হাজার। এবার সম্ভাব্য ১৫২ টি ভোটকেন্দ্রের ১১৭৩ টি কক্ষে ইভিএমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।
রাজশাহী জেলা নির্বাচন অফিসার মো. আবুল হোসেন বলেন, নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থীরা প্রস্তুতি শুরু করেছেন। এই নির্বাচনে সকলের অংশগ্রহণ নিশ্চিতে আমরা আন্তরিক। তবে কোন দল যদি নির্বাচনে না আসে সেটা তাদের ব্যাপার। আমরা নিয়ম অনুযায়ী নির্বাচনের আয়োজন করবো।
২০০৮ সালে সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ৯৮ হাজার ৩৮০ ভোট মেয়ে মেয়র হন আওয়ামী লীগ সমর্থিত খায়রুজ্জামান লিটন। বিএনপি সমর্থিত মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ভোট পান ৭৪ হাজার ৫৫০টি। ভোটের ব্যবধান ২৩ হাজার ৮১০টি। ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর সেবারই প্রথম আওয়ামী লীগ সমর্থিত কোনো প্রার্থী শহরটিতে জয়ের মুখ দেখে।
লিটনের পাঁচ বছরে রাজশাহী শহরের উন্নতি ছিল দৃশ্যমান। তবে ২০১৩ সালের নির্বাচনে বড় ব্যবধানে হেরে যান ক্ষমতাসীন দল সমর্থিত প্রার্থী। সেই নির্বাচনে বুলবুল ভোট পান ১ লাখ ৩১ হাজার ৭৯৬ ভোট। লিটনের বাক্সে পড়ে ৮৩ হাজার ৩৮৯ ভোট। তিনি হারেন ৪৮ হাজার ৪০৭ ভোটে।
২০১৮ সালের ৩০ জুলাইয়ের ভোটে আবার খায়রুজ্জামান লিটনের জয় হয়। দলীয় প্রতীকে ওই নির্বাচনে নৌকা নিয়ে তিনি পান ১ লাখ ৬৫ হাজার ৩৩২ ভোট। ধানের শীষ প্রতীকে বুলবুল পান ৭৭ হাজার ৭০০ ভোট।


প্রকাশিত: এপ্রিল ২৮, ২০২৩ | সময়: ৪:৪৬ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর