সর্বশেষ সংবাদ :

নওগাঁর তালতলিতে বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের দাবিতে মানববন্ধন 

নওগাঁ প্রতিনিধি : 
সম্প্রতি অনুমোদন পাওয়া ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় নওগাঁ’ সদর উপজেলার তালতলী বিলে স্থাপনের দাবিতে মানববান্ধন করেছে স্থানীয় বাসিন্দারা। সোমবার দুপুরে নওগাঁ শহরের মুক্তির মোড়ে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। বঙ্গবন্ধু পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থান নির্ধারণ বাস্তবায়ন কমিটির ব্যানারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়। নওগাঁ শহরের নওজোয়ান মাঠ থেকে জেলা শিক্ষা অফিস পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার এলাকাজুড়ে মানববন্ধনে পাঁচ শতাধিক মানুষ অংশ নেন।

 

 

বঙ্গবন্ধু বিশ্ববিদ্যালয় স্থান নির্ধারণ বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক ও নওগাঁ পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বক্তব্য দেন নওগাঁ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, দুবলহাটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি এরশাদ আরী, জাতীয় শ্রমিক লীগ নওগাঁ জেলা কমিটির সভাপতি আব্দুল মজিদ, অধ্যক্ষ আব্দুর রহমান, চাল ব্যবসায়ী মকবুল হোসেন প্রমুখ।

 

 

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, স্বাধীনতার পর ১৯৭৩ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান উত্তরাঞ্চলের প্রথম নওগাঁয় আসেন। এ সময় তিনি নওগাঁ পৌরসভা সংলগ্ন তালতলী বিল ঐতিহাসিক জনসভায় ভাষণ দেন। সেই স্মৃতি ধরে রাখতে নওগাঁ-দুবলহাটি সড়কের পাশে তালতলী বিলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও আওয়ামী লীগ নেতা প্রয়াত আব্দুল জলিলের ম্যুরাল তৈরি করা হয়েছে। আজ যখন বঙ্গবন্ধুর নামেই পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন হচ্ছে, তখন বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি বিজড়িত তালতলী বিলেই বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হবে যৌক্তিক।

 

 

মানববন্ধনে নওগাঁ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন মাধ্যম থেকে শোনা যাচ্ছে যে, নওগাঁর সীমান্তবর্তী উপজেলা নিয়ামতপুরের ছাতড়া বিল এলাকায় না কি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের জন্য স্থানীয় কিছু নেতা জোর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। ওই স্থানে যাতায়াত ব্যবস্থা খুবই খারাপ। এছাড়া সেখানে কোনো আধুনিক সুযোগ-সুবিধা না থাকায় দূর-দূরান্ত থেকে আসা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ভোগান্তির শিকার হবেন। কিন্তু তালতলী বিলে বিশ্ববিদ্যালয় করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা সকল ধরণের সুযোগ-সুবিধা পাবেন। এখানে সড়ক ও রেল যোগাযোগ রয়েছে। তালতলী বিল নওগাঁ শহর থেকে দুই থেকে তিন কিলোমিটার দূরে এবং ওই বিলের জমিগুলো এক ফসলী। যৌক্তিকভাবে বিবেচনা করলে তালতলী বিলই বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের উপযুক্ত জায়গা।

 

 

নওগাঁ বিশ্ববিদ্যালয় স্থান নির্ধারণ বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক শরিফুল ইসলাম বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়, নওগাঁ একটি যৌক্তিক স্থানে করার জন্য আমরা ধারাবাহিকভাবে আন্দোলন করে যেতে চাই। গুটিকয়েক নেতা নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য অযৌক্তিক কোনো স্থানে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করলে নওগাঁবাসী তা মেনে নেবে না। ২০১৮ সালে নওগাঁয় এক জনসভায় ভার্চুয়ালি য্ক্তু হয়ে সেখানে একটি পূর্ণাঙ্গ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের প্রতিশ্রুতি দেন। এর চার বছর পর ২০২২ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি নওগাঁয় বঙ্গবন্ধুর নামে একটি বিশ্ববিদ্যালয় আইনের খসড়া অনুমোদন প্রদান করে মন্ত্রিসভা। গত ৭ ফেব্রুয়ারি ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়, নওগাঁ’ বিল সংসদে পাস হয়।

সানশাইন / শামি

 


প্রকাশিত: মার্চ ১৩, ২০২৩ | সময়: ১০:৩৬ অপরাহ্ণ | Daily Sunshine