পবায় ৪০ বিঘা জমির মসুর ডাল চুরির অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: রাজশাহীর চরখানপুর ও মাজারদিয়া এলাকায় রাতের আধাঁরে ৪০ বিঘা জমির মসুরি ডাল মাড়াই করে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ৪ মার্চ রাতে পবার হরিপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড সদস্য বাবর আলীর মসুর কলাই মাড়াই করে নেয় চোররা। এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য বাবর আলীর ম্যানেজার সোহাগ আলী বাদি হয়ে নগরীর দামকুড়া থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। অভিযোগ পাওয়ার পর নগরীর দামকুড়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন ও চুরির সত্যতা পেয়েছেন।
দামকুড়া থানায় দায়ের করা অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ইউপি সদস্য বাবর আলী চরখানপুর ও মাজারদিয়া এলাকায় ১১০বিঘা জমিতে মসুর চাষ করেছিলেন। এই মসুরের আবাদ দেখা শোনা করতো ওই এলাকার মুকলা ঘোসের ছেলে সাইফুল ইসলাম অরফে সইফুল, ইব্রাহিমের ছেলে কমর আলী। মসুর পরিপাক্কা হওয়ায় বাবর আলী লোকজন দিয়ে জমি থেকে মসুর উত্তোলন করে জমিতেই স্তুপ করে রাখেন। কিন্তু সইফুল ও কমর আলী কয়েকজন লোক নিয়ে তার মসুর ডাল রাতের আধাঁরে মাড়াই করে নেয়। পরে ইউপি সদস্যের ম্যানেজার সোহাগ আলী সেখানে গিয়ে দেখতে পান ৪০ বিঘা জমির মসুর তারা চুরি করে মাড়াই করে নিয়েছেন। পরে গত ৫ মার্চ এব্যাপারে সোহাগ আলী বাদি হয়ে দামকুড়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, ১২০ মন মসুরি ডাল তারা চুরি করে নিয়ে গেছে। যার মূল্য প্রায় তিন লাখ ৮৪ হাজার টাকা।
নগরীর দামকুড়া থানার এসআই আকবর হোসেন বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর সেখানে গিয়ে মসুরি মাড়াই করে নেয়ার সত্যতা পাওয়া গেছে। অভিযুক্তরা কেউ বাড়িতে ছিল না। যার কারণে তাদের আটক করা সম্ভব হয়নি। তিনি বলেন, যারা মসুর দেখা শোনা করতো তারাই লোকজন নিয়ে মালিকের অগোচরে মাড়াই করে নিয়েছে। তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।


প্রকাশিত: মার্চ ৯, ২০২৩ | সময়: ৬:০০ পূর্বাহ্ণ | সুমন শেখ

আরও খবর